স্কুলের নিয়মে বড় পরিবর্তন! বদলে গেল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসের সময়সূচী

স্কুলের নিয়মে বড় পরিবর্তন! বদলে গেল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসের সময়সূচী / প্রতীকী ছবি
স্কুলের নিয়মে বড় পরিবর্তন! বদলে গেল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসের সময়সূচী / প্রতীকী ছবি

দীর্ঘ বেশ কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর রাজ্যে ফের খুলেছে স্কুল। তবে স্কুল খোলার পর সময়সূচীতে কিছু পরিবর্তন করা হয়েছিল৷ আর সেই লের পরিবর্তিত সময়সূচী বেশ সমস্যার মধ্যে পড়েছিলেন রাজ্যের নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকারা। ফলে স্কুলের সময়সূচী বড় বদল করল রাজ্য শিক্ষা দপ্তর। এবার থেকে প্রত্যেক সপ্তাহের সোম, বুধ এবং শুক্রবার হবে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাস। সপ্তাহের অন্য দুদিন অর্থাৎ মঙ্গলবার এবং বৃহস্পতিবার হবে নবম ও একাদশ শ্রেণীর ক্লাস। শনিবার ক্লাস বন্ধ থাকবে।

এই প্রসঙ্গে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে পশ্চিমবঙ্গ মধ্য শিক্ষা পর্ষদ জানিয়েছে, নতুন সূচি অনুযায়ী, সোমবার থেকে শুক্রবার, সপ্তাহের পাঁচদিনই সশরীরে ক্লাস হবে। ওই ৫ দিন সকাল সাড়ে দশটা থেকে ক্লাস শুরু হবে। তা চলবে বিকেল সাড়ে চারটে পর্যন্ত। দার্জিলিং এবং কালিম্পংয়ের পাহাড়ি জেলাগুলি বাদে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলায় এই নয়া সময়সূচী অনুযায়ী ক্লাস হবে। দার্জিলিং ও কালিম্পংয়ের ক্ষেত্রে সপ্তাহের ৫ দিন অর্থাৎ সোম থেকে শুক্র, সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে দুপুর ৩ টে পর্যন্ত ক্লাস চলবে। পর্ষদের তরফে আরও জানানো হয়েছে, শনিবার নবম থেকে দ্বাদশ, সব শ্রেণীর ক্লাস বন্ধ থাকলেও স্কুলে বেশ কিছু কাজ থাকছে। প্রত্যেক শনিবার স্কুলগুলিতে ফিডব্যাক সেসন, সচেতনতা কর্মসূচি এবং অভিভাবকদের জন্য ওরিয়েন্টেশনের ব্যবস্থা করতে হবে।

স্কুলের নিয়মে বড় পরিবর্তন! বদলে গেল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসের সময়সূচী / প্রতীকী ছবি
স্কুলের নিয়মে বড় পরিবর্তন! বদলে গেল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাসের সময়সূচী / প্রতীকী ছবি

প্রসঙ্গত, এতদিন শিক্ষক শিক্ষিকাদের সাড়ে ৯ টায় স্কুলে ঢুকতে হচ্ছিল। ২টো শিফটে হচ্ছিল ক্লাস। নবম ও একাদশ শ্রেণীর ক্লাস শুরু হচ্ছিল ১০ টা থেকে আর দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাস শুরু হচ্ছিল ১১ টা থেকে। আবার কোভিড বিধি মেনে একটি ক্লাসকে দু’টি বা তিনটি ব্যাচে ভাগ করে ক্লাস চলছিল। আগে দুটো সেকশন থাকলে, এখন তা ভেঙে চারটে সেকশন করে ক্লাস চলছিল। কিন্তু শিক্ষক শিক্ষিকাদের সংখ্যা একই থাকায় তাঁদের বারবার একই ক্লাস নিতে হচ্ছিল।

এরই সঙ্গে আবার পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীর জন্য অনলাইন ক্লাস চলছে। অফলাইন আর অনলাইন ক্লাসে পড়ানোর পদ্ধতিও আলাদা। ফলে সবমিলিয়ে খুবই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছিল। বেশ অসুবিধার মুখেই পড়ছিলেন শিক্ষক শিক্ষিকারা। তাই সেসব কথা চিন্তা করেই স্কুলের সময়সূচীতে এবার বড় পরিবর্তন আনল রাজ্য শিক্ষা দপ্তর৷ আশা করা যাচ্ছে, নতুন নির্দেশিকা আসার ফলে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সমস্যার বেশ কিছুটা হলেও মিটবে।