ছেলের বিয়ের দিনই মা জানলেন হবু পুত্রবধূ আসলে তার নিজের মেয়ে! অতঃপর কী ঘটল?

ছেলের বিয়ের দিনই মা জানলেন হবু পুত্রবধূ আসলে তার নিজের মেয়ে! অতঃপর কী ঘটল?
ছেলের বিয়ের দিনই মা জানলেন হবু পুত্রবধূ আসলে তার নিজের মেয়ে! অতঃপর কী ঘটল?

বর্তমানে বিয়ে মানেই যেন বড়সড় এক ‘গ্র‍্যান্ড ইভেন্ট’! বিবাহ অনুষ্ঠানকে স্মরণীয় করে রাখতে নানা মন মাতানো আজব সব কাণ্ড কারখানায় মেতে ওঠেন দুই পরিবারই। তবে কখনও কখনও বিয়ের অনুষ্ঠানে যেমন মজার কাণ্ড ঘটে; তেমনই কখনও আচমকাই এমন কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে, যে কারণে হয়তো বিয়েটাই ভাঙতে বসে! সম্প্রতি এমনই এক জটিল ঘটনার সাক্ষী থাকল চিনের জিয়াংসু প্রদেশের সুঝৌউ এলাকা। যেখানে বিয়ের অনুষ্ঠানেই পাত্রের মা জানতে পারলেন, হবু পুত্রবধূ আসলে তাঁর হারিয়ে যাওয়া মেয়ে! হ্যাঁ, ঠিক যেন কোনও সিনেমার গল্পই!

আন্তর্জাতিক সূত্রে খবর, চিনের ওই মহিলার মেয়ে খুব ছোটবেলাতেই হারিয়ে যায়। তার হাতে ছিল এক জন্মদাগ। মেয়ে হারানোর পর মহিলাটি এক ছেলে দত্তক নেন। এরপর তাকেই নিজের ছেলের মতো আদর যত্নে বড় করে তোলেন। এরপর সম্প্রতি সেই ছেলের সঙ্গেই এক যুবতীর বিয়ে ঠিক হয়েছিল। সব কিছু ঠিকঠাকই ছিল৷ এরপরই ঘটে সেই কাণ্ড! বিয়ের দিন সকালে পাত্রের মা হবু পুত্রবধূর হাতে একই রকমের জন্মদাগ দেখতে পান, যা তার হারিয়ে যাওয়া মেয়ের ছিল। দেখেই খটকা লাগে তাঁর। তাই যেচে গিয়ে পাত্রীর মা-বাবাকে প্রশ্ন করে বসেন, মেয়েটি তাদের নিজেদের কি না?

পাত্রীর মা-বাবা এরপর যা উত্তর দেন, তাতেই সব কিছু পরিস্কার হয়ে যায়। তাঁরা জানান, মেয়েটি তাঁদের নিজেদের কন্যা নয়৷ তাকে অনেকবছর আগে রাস্তার ধারে কুড়িয়ে পেয়েছিলেন ওই দম্পতি। তারপর নিজেদের মেয়ের মতো করেই বড় করে তুলেছেন তাকে। এরপরই পাত্রের মা বুঝতে পারেন, হবু পুত্রবধূ আসলে তাঁরই হারিয়ে যাওয়া সেই মেয়ে। বুঝেই কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। নিজের মেয়ের কাছে গিয়ে ঘটনাটি খুলেও বলেন৷ তারপর মা-মেয়ের মিলিত হওয়ার পালা!

তবে এরপরই প্রশ্ন ওঠে, যে বিয়েটা কি তাহলে আদৌ সম্ভব? কিন্তু সে সমস্যারও সমাধান হয়ে যায়। পাত্রের মা জানান, যেহেতু ছেলেটি তাঁর দত্তক নেওয়া তাই বর-কনে বাস্তবে ভাই-বোন নয়। ফলে এরপর বিয়ে হতে কোনও বাধাই থাকে না। ধুমধাম করেই এরপর সম্পন্ন হয় বিয়ে। অন্যদিকে, নিজের মায়ের আসল পরিচয় জানতে পেরে পাত্রীও বেশ খুশি। তিনি জানিয়েছেন, বিয়ের থেকেও নিজের আসল মা-বাবার পরিচয় জানতে পারাই ছিল তাঁর কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বহুদিন ধরেই তা জানার চেষ্টা করছিলেন তিনি। অবশেষে নিজের বিয়ের দিনই তা জানতে পেরে খুশিতে আত্মহারা হয়েছেন তিনিও। কারণ, নিজের শাশুড়ি যে আদতে তার নিজেরই মা!

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.