ব্রেকিং নিউজ… নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোটকাণ্ডের তদন্তভার সিআইডি’র হাতে

ব্রেকিং নিউজ... নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোটকাণ্ডের তদন্তভার সিআইডি'র হাতে
ব্রেকিং নিউজ... নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোটকাণ্ডের তদন্তভার সিআইডি'র হাতে

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সম্প্রতি নন্দী গ্রামে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে আহত হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই অনেক তর্ক-বিতর্ক হয়েছে। শাসকদলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করে হয়েছে যে, এটা বিজেপির চক্রান্ত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর ইচ্ছে করেই আঘাত করা হয়েছে। অন্যদিকে গেরুয়া শিবিরের বক্তব্য, সবটাই মুখ্যমন্ত্রীর ‘নাটক’। যদিও এতাকে একটা দুর্ঘটনা বলে মনে করছে নির্বাচন কমিশন।

এদিকে এবার নন্দীগ্রামে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোটকাণ্ডের তদন্তভার নিল সিআইডি। ওই ঘটনার তদন্তের জন্য গঠন করা হয়েছে সিট। সূত্রের খবর, আগামিকালই নন্দীগ্রাম পৌঁছবে তদন্তকারী দল।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চলতি মাসের ১০ তারিখ নন্দীগ্রামে মনোনয়ন জমা দিয়ে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময় তিনি দাবি করেছিলেন যে, সবটাই ষড়যন্ত্র। চার-পাঁচজন মিলে তাঁকে ধাক্কা মারে। গাড়ির দরজার চাপে তাঁর আঘাত লাগে। শুধু পায়েই নয়, শরীরের বেশ কিছু জায়গায় তাঁর আঘাত লাগে। এরপর তাঁকে তড়িঘড়ি গ্রিন করিডর করে কলকাতায় এনে, এসএসকেএমে ভর্তি করা হয়। এরপর থেকে প্রতিটি নির্বাচনী সভায় তিনি দাবি করেছেন যে, তাঁকে ইচ্ছে করেই আঘাত করা হয়েছে। এর জন্য তিনি বিজেপির দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন।

সম্প্রতি এই ঘটনায় রাজ্যের মুখ্য সচিবের কাছে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রচণ্ড ভিড়ে দরজা চেপে গিয়েছে। আবার আলাদা করে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন বিশেষ পর্যবেক্ষক বিকাশ দুবে। সেখানেও দুর্ঘটনার তত্ত্বকেই মান্যতা দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে যে, এই ঘটনায় হামলার কোনও প্রমাণ নেই। তারপরেও বারবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে হামলার কথাই বলা হচ্ছে।

এই আবহে হুইলচেয়ারে করেই নির্বাচনী প্রচার সারছেন জেলায় জেলায়। গতকালই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঘাত সম্পর্কে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া এবং নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিপক্ষ শুভেন্দু অধিকারী মন্তব্য করেন যে, তিনি নাটকবাজি করছেন। শুভেন্দু অধিকারী এ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছেন।

আর এবার এই চোটকাণ্ডে নয়া মাত্রা যোগ হল ঘটনার তদন্তভার সিআইডি’র হাতে যাওয়ায়। জানা গিয়েছে, আগামিকাল ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলবেন সিটের সদস্যরা।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.