যশের মোকাবিলায় উপান্নতে কন্ট্রোল রুম! টুইট করে ফোন নম্বর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

যশের মোকাবিলায় উপান্নতে কন্ট্রোল রুম! টুইট করে ফোন নম্বর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী
যশের মোকাবিলায় উপান্নতে কন্ট্রোল রুম! টুইট করে ফোন নম্বর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

আগামী ২৬ তারিখ ওড়িষা সহ বাংলায় আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে ঘূর্ণিঝড় যশের। তার মোকাবিলায় রাজ্য থেকে জেলা প্রস্তুত সকলেই। বিভিন্ন জায়গায় চলছে বাঁধ মেরামতির কাজও। ইতিমধ্যেই নবান্নর পাশের প্রশাসনিক ভবন উপান্ন-তে কন্ট্রোল রুম তৈরি করা হয়েছে। শনিবার টুইট করে এই কন্ট্রোল রুমের নম্বর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপশি সতর্ক করলেন রাজ্যবাসীকে।

এদিন রাতে পরপর তিনটি টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড় যশের মোকাবিলা করার জন্য সর্বক্ষণের কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে উপান্নতে। যে কোনও সাহায্যের জন্য জরুরি পরিস্থিতিতে সেই কন্ট্রোল রুমে ফোন করা যাবে। এর পরেই কন্ট্রোল রুমের দু’টি নম্বরও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নম্বর দুটি হল, ১০৭০ এবং ০৩৩-২২১৪৩৫২৬।

এছাড়াও, অন্য টুইটে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, “সাইক্লোন মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে উপকূল এলাকাতে অগ্রিম পরিকল্পনা এবং স্থানান্তরের কাজ সেরে ফেলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।”আগে থেকেই ত্রাণ সামগ্রী জায়গা মতো পাঠিয়ে রাখা হয়েছে এবং কুইক রেসপন্স টিমও মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।এছাড়াও
যারা বিপজ্জনক জায়গায় রয়েছেন, তাঁদের দ্রুত ত্রাণশিবিরে নিয়ে আসার এবং পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরকে তৈরি থাকতে বলা হয়েছে। পাশাপশি প্রয়োজনীয় ওষধ, ত্রিপল, জল, খাবার, সহ অন্যান্য সকঞ্জামও রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়ও বিভিন্ন উপকূলবর্তী এলাকায়ও চলছে মাইকিং। সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে মৎসজীবিদের। তবে ইতিমধ্যেই যারা সমুদ্রে রয়েছেন তাদের ফেরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

যশের মোকাবিলায় জেলা শাসকগুলিকে আগাম প্রস্তুতি নিতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই মতই ,পূর্ব বর্ধমান জেলা শাসক এবং জেলার প্রশাসনিক অধিকর্তারা এক বিশেষ বৈঠক করেন। পাশাপাশি আলোচনা হয় করোনা মোকাবিলা নিয়েও। তারা জানান, বিপর্যয় দফতরকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি হাসাপাতেলর বন্দোবস্তও করা হয়েছে।