গোঘাটের জনসভা থেকে মমতা দিলেন কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি, সঙ্গে অনুরোধ বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার

গোঘাটের জনসভা থেকে মমতা দিলেন কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি, সঙ্গে অনুরোধ বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার
গোঘাটের জনসভা থেকে মমতা দিলেন কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি, সঙ্গে অনুরোধ বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার / ছবি সৌজন্যে- Screengrab From Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ রাজ্যে একুশের বিধানসভা নির্বাচন শুরু হয়ে গেছে। ইতিমধ্যেই প্রথম দফার ভোট সম্পূর্ণ হয়েছে রাজ্যের ৫ টি জেলার ৩০ আসনে। প্রথম দফার ভোট শুরুই হয়েছে জঙ্গলমহল দিয়ে। এরপর ১ এপ্রিল রয়েছে রাজ্যে দ্বিতীয় দফার ভোট। এই দ্বিতীয় দফাতেও রাজ্যের মধ্যে ৩০ আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে রয়েছে পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া ইত্যাদি জেলা। আর দ্বিতীয় দফার ভোটের সবথেকে হাইভোল্টেজ কেন্দ্র নন্দীগ্রামেও ভোট রেয়েছে। সবেমাত্র সেখানে নির্বাচনী প্রচার শেষ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকালই।

দ্বিতীয় দফার ভোটের আগেই শুরু হয়ে গেছে তৃতীয় দফার ভোটের জন্য নির্বাচনী প্রচার। তৃতীয় দফায় ৬ এপ্রিল গোঘাট আসনে নির্বাচন। তার আগে, বুধবার গোঘাটে জনসভা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই জনসভা থেকে তিনি ফের একবার বাংলায় কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি দিলেন। শুধু একটাই অনুরোধ রাখলেন মানুষের কাছে। আর তা হল, একটি ভোটও যেন বিজেপিকে দেওয়া না হয়।

আহত পা নিয়েই জোড় প্রচার চালাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনী প্রচারে কোনও ফাঁক রাখতে চাইছেন না তিনি। হুইলচেয়ারে করেই সারছেন রোড শো। শারীরিক সমস্যার কথা না ভেবেই, বুধবার নন্দীগ্রাম থেকে হুগলির গোঘাটে নির্বাচনী প্রচারে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গোঘাটের জনসভা থেকে ফের একবার বিজেপিকে তুলোধোনা করেন তিনি। বলেন, ‘বিজেপি বাংলাকে ঘৃণা করে। সেই কারণেই আগে বহুবার পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তনের আবেদন করা হলেও কেন্দ্রের তরফে তাতে সম্মতি দেওয়া হয়নি।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাথরস প্রসঙ্গ টেনে এনে বলেন যে, ‘যাই হয়ে যাক, বাংলাকে হাথরস হতে দেব না। একটা মেয়ের গায়েও হাত দিতে দেব না।‘ এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাধারণ জনতার উদ্দেশ্যে বলেন যে, ‘চাকরি দেব, কর্মসংস্থান হবে, কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, সবুজ সাথী, স্বাস্থ্যসাথী সব পাবেন, শুধু অনুরোধ করব কেউ বিজেপিকে ভোট দেবেন না।’

এদিনের জনসভা থেকেও তিনি শুভেন্দু অধিকারীর নাম না করে, অধিকারীদের সমালোচনা করেন। নাম না করে, ফের একবার সরাসরি শুভেন্দু আক্রমণ করেন। বলেন যে, ‘খাইয়ে পড়িয়ে মানুষ করেছি, দুধ, কলা দিয়ে কালসাপ পুষেছি।’ এরপর প্রায় সঙ্গে সঙ্গে প্রথম মন্তব্য প্রত্যাহার করে নন্দীগ্রামের, বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূল নেত্রীর সাফ কথা, ‘তুমিও লড়বে আর আমিও লড়ব। আমার কর্মীদের উপর হামলা কেন? আমার কর্মীদের মারধর করা হচ্ছে। আমার গাড়িতে আক্রমণ করা হচ্ছে।” এরপরই হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘শুধু ভোট বলে চেপে যাচ্ছি, নাহলে আমিও দেখে নিতাম, কে কত বড় নেতা। কার কত ক্ষমতা।”

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.