লজ্জা, ঘেন্না, ভয় তিন থাকতে নয়! শিলিগুড়ির সভা থেকে মোদিকে আক্রমণ মমতার

লজ্জা, ঘেন্না, ভয় তিন থাকতে নয়! শিলিগুড়ির সভা থেকে মোদিকে আক্রমণ মমতার
লজ্জা, ঘেন্না, ভয় তিন থাকতে নয়! শিলিগুড়ির সভা থেকে মোদিকে আক্রমণ মমতার / ছবি সৌজন্যে- Screengrab from Facebook Video Posted By @MamataBanerjeeOfficial

বংনিউজ২৪x৭ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ যখন রাজ্যে এক প্রান্তে ব্রিগেডের সভামঞ্চ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সোনার বাংলা গড়ার ডাক দিচ্ছেন, আসল পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন, ঠিক তখন রাজ্যের আর এক প্রান্তে পেট্রোপণ্য এবং রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ক্রমাগত আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের দু-প্রান্তে দাঁড়িয়ে দুই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব কথার মাধ্যমে শুরু করে দিলেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলা দখলের লড়াই। আজ রাজ্যের সাধারণ মানুষের সমস্যাকে হাতিয়ার করে, পাল্টা পথে নামেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় ৫৮০ কিলোমিটার দূরে শিলিগুড়িতে পদযাত্রার মধ্য দিয়ে নির্বাচনের প্রচার শুরু করে দেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ শিলিগুড়িতে পেট্রোপণ্য ও রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে, মহিলা ব্রিগেডকে সঙ্গে নিয়ে দার্জিলিং মোড় থেকে ভেনাস মোড় পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা হাঁটেন তৃণমূল সুপ্রিমো। উদ্দেশ ছিল, নারী সুরক্ষায় জোর দেওয়া, পাশাপাশি গৃহস্থের পাশে থাকার বার্তা পৌঁছে দেওয়া এই মিছিলের মাধ্যমে। গৃহস্থের পাশে থাকার বার্তা দিতে, প্রতীকী হিসেবে ছিল গ্যাস সিলিন্ডার। আজকের পদযাত্রার মধ্য দিয়ে পুরোদমে নির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আজকের পদযাত্রায় মমতার সঙ্গে ছিলেন সাংসদ নুসরত জাহান, মিমি চক্রবর্তী, দোলা সেনরা।

উল্লেখ্য, কলকাতায় ১৪.২ কেজি রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম ৮৪৫ টাকা ৫০ পয়সা। একই সঙ্গে সম্প্রতি লাগাতার দাম বেড়েছে পেট্রল ও ডিজেলের। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে রান্নার গ্যাসের দাম। আর এর জেরে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামও আকাশছোঁয়া। যার জন্য নাজেহাল অবস্থা সাধারণ মানুষের। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে পেট্রোপণ্য ও রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিকে হাতিয়ার করছেন তৃণমূল নেত্রী। তিনি আগেই বলেছিলেন যে, সিলিন্ডার নিয়ে মিছিল হবে, মহিলারা সঙ্গে থাকবেন। তেমনটাই হয়। এদিন পদযাত্রায় প্ল্যাকার্ড, কাট আউটের ছত্রে ছত্রে ছিল কেন্দ্রকে আক্রমণ। পদযাত্রায় গ্যাস সিলিন্ডারের কাট আউটে লেখা, দেখো আমি বাড়ছি মাম্মি।

মিছিলে হাঁটার পর, আজ শিলিগুড়িতে সভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সভা থেকে বারবার তিনি প্রধানমন্ত্রী এবং বিজেপিকে আক্রমণ করেন। ‘রোজ রোজ মিথ্যে কথা মানুষ নেবে না। প্রধানমন্ত্রী চেয়ারটাকে তো সম্মান করুন। আগেরবার কেন্দ্রের বিজেপি সরকার বলেছিল ১৫ লক্ষ টাকা দেবে বলেছিল। দিয়েছে? এবার বলতে এলে উল্টো দেবেন। ভোট দেবেন তৃণমূলকে।’ শিলিগুড়িতে এমনটাই বললেন মমতা। আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোভিড ভ্যাকসিনে মোদীর ছবি নিয়েও সমালোচনা করেন।

শিলিগুড়ির সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন। তিনি বলেন যে, ‘বাংলার নির্বাচনের আগে ওয়ান টু ওয়ান মমতার সঙ্গে লড়ো।’ মোদীর উদ্দেশে এটাই ছিল চ্যালেঞ্জ মমতার। হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে, ‘আমার রাজ্যকে বিক্রি করে দেবে এতো সস্তা নয়।’

তিনি কেন্দ্রের বিজেপির সরকার তথা মোদীর বিরুদ্ধে আক্রমণ করে বলেন যে, বাংলায় রান্নায় গ্যাসের দাম বাড়িয়ে বলছেন, মা-বোনেদের সম্মান নেই। আর উত্তরপ্রদেশের মেয়েরা দুপুরেও বাইরে বেরোতে পারে না।’ মোদীর উদ্দেশে কটাক্ষ করে বলেন, লজ্জা, ঘেন্না, ভয় তিন থাকতে নয়। আজ শিলিগুড়ির সভা থেকে তিনি প্রশ্ন তোলেন যে, কেন বাড়ছে পেট্রল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের দাম? তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী কুৎসা, অপপ্রচার করতে বারবার বাংলায় আসেন। আজকে প্রচার করতে এসেছেন। কেন পেট্রোল, ডিজেলের দাম বেড়েছে। বাংলার সরকার বিনা পয়সায় চাল দেয়। আর ফোটাতে গেলে লাগে ৯০০ টাকার গ্যাস। উজ্জ্বলা প্রকল্পে ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে বলেও উল্লেখ্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন যে, আসন্ন পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে হারবে বিজেপি। বাংলাতেও তাঁদের হারতে হবে। সভার শেষে তিনি সকলের উদ্দেশে বলেন খেলা হবে, জেতা হবে, দেখা হবে বলে বক্তব্য শেষ করেন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.