বুলবুলের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত গোটা রাজ্য, সোমবার আকাশপথে পরিদর্শন করবেন মুখ্যমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিবেদনঃ বুলবুলের তাণ্ডব যে নেহাতই কিছু কম নয়, তা গোটা রাজ্যের ক্ষতিগ্রস্থ অবস্থা দেখলেই বোঝা যায়। বুলবুলের তাণ্ডবে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে প্রচুর। লণ্ডভণ্ড বাংলার উপকূলবর্তী এলাকা৷ সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবন লাগোয়া উপকূলবর্তী এলাকা৷ তাই সোমবার আকাশপথে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত নামখানা, বকখালি ঘুরে দেখবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার টুইটারে একথা জানিয়েছেন তিনি।

বুলবুলের তাণ্ডবে এখনও পর্যন্ত গোটা রাজ্যে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রায় তিন লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত সাড়ে ২৯ হাজারের মতো বাড়়ির পুরোপুরি বা আংশিক ক্ষতি হয়েছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ফসলের। শনিবার রাত ১১টা পর্যন্ত নবান্নের কন্ট্রোল রুম থেকে বুলবুলের তাণ্ডবের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রবিবার সকালে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী৷ বুলবুল মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকা প্রশংসা করেন রাজ্যপাল৷

বুলবুলের তাণ্ডবে বকখালি, সাগরদ্বীপ, কাকদ্বীপ, পাথরপ্রতিমায় সব থেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে৷ বাড়িছাড়া বহু মানুষ৷ উপড়ে গিয়েছে গাছ, বিদ্যুতের খুঁটি৷ উড়ে গিয়েছে ঘরের চাল৷ চাষের জমি তছনছ হয়েছে৷ নামখানায় ভেঙে গিয়েছে জেটি৷ নিঁখোজ ১০ মৎস্যজীবী। ঝড়ের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ৯৫০ টি মোবাইল টাওয়ার। প্রায় তিন হাজার বাড়ি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের জেরে উত্তরবঙ্গ সফর বাতিলও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ  বিবাহিত জীবনে অশান্তি ও মারধরের কারণে বিয়ে টেকেনি এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.