কেন হঠাৎ নিল-সাদা রং বদলে হল গেরুয়া! প্রধানমন্ত্রীর সফরের আগেই বিতর্কের মুখে পোর্ট ট্রাস্ট

Image source: Google

বিশেষ প্রতিবেদনঃ শনিবার কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাই প্রধানমন্ত্রী আসার আগেই শহরের নিরাপত্তা বেশ জোরদার করার কাজ জোরকদমে শুরু হয়েছে। বভিন্ন মহলে শুরু হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানানোর প্রস্তুতি। কিন্তু এই সব কিছুর মধ্যেও পোর্ট ট্রাস্টের রং বদলের ঘটনা জন্ম দিল এক নয়া বিতর্কের। রাতারাতি নিল-সাদা রং বদলে গেরুয়া রং হয়ে গেল মিলেনিয়াম পার্কের। কিন্তু হঠাৎ রং বদল করে গেরুয়া রং দেওয়ার পেছনে কি রয়েছে কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য! তবে উদ্দেশ্য যাই হোকনা কেন রাজ্যের অনুমতি ছাড়াই মিলেনিয়াম পার্কের রং পরিবর্তন করায় অত্যন্ত অসন্তুষ্ট হয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যের আরও চারটি প্রশাসনিক ভবনের ন্যায় পোর্ট ট্রাস্টের রং-ও এতদিন নিল-সাদাই ছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আসার নামেই তা বদলে রাতারাতি গেরুয়া করা হল। এই রং পরিবর্তন নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়ে জোর জল্পনা। তবে কি প্রধানমন্ত্রী আসার কারনেই বদল করা হয়েছে রং? এমনই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

তৃণমূল শিবিরের দাবি, নীল-সাদা রং কোন দলের সাথে সম্পর্কযুক্ত নয়। কিন্তু গেরুয়া বিজেপি সঙ্গে মেলে। প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করার জন্যই কি তাহলে রাতারাতি রং বদল করে গেরুয়া করা হয়েছে মিলেনিয়াম পার্কের? কিন্তু পুরসভাকে না জানিয়ে কেন এই রঙের বদল ঘটল তা নিয়ে প্রশ্ন করা হলেও এখনও তাঁর কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

কিন্তু এই রং বদলের পরে তা নিয়ে বতর্ক শুরু হওয়ায় তা ফের তা গেরুয়া থেকে নীল-সাদা রঙে ফিরিয়ে আনা হয়। শনিবার বিকেল পাঁচটা নাগাদ দমদম বিমান বন্দরে আসার কথা প্রধানমন্ত্রীর। এরপর প্রথমেই তিনি যাবেন ওল্ড কারেন্সি বিল্ডিং-এ। সেখানে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের একটি মেন্টিং মিউজিয়াম উদ্বোধন করবেন তিনি। তারপর হাওড়া ব্রিজের লাইট অ্যান্ড সাউন্ড ব্যবস্থার উদ্বোধনের জন্য মিলেনিয়াম পার্কে যাওয়ার কথা তাঁর। অবশেষে তিনি যাবেন বেলুড় মঠ ও রাজভবনে। এক সপ্তাহের নানান কর্মসূচীর পর নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে একটি অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন তিনি। সেখান থেকে সেদিনেই দিল্লি ফেরৎ জাবেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ  LIC র সবথেকে বড় চমক, জেনে নিন উপকৃত হবেন

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.