পারলে ফিরে আসুন! দলত্যাগী বিধায়কদের আবেদন সুকান্তর

পারলে ফিরে আসুন! দলত্যাগী বিধায়কদের আবেদন সুকান্তর
পারলে ফিরে আসুন! দলত্যাগী বিধায়কদের আবেদন সুকান্তর

বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর যতদিন গড়িয়েছে ততোই বিজেপি বিধায়ক এর সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। ৭৭জন বিধায়ক নিয়ে একুশে নির্বাচনের পর পথ চলা শুরু করলেও সেই সংখ্যা এখন কমে দাঁড়িয়েছে সত্তরে। আর তাতেই কার্যত অশনিসংকেত দেখছে গেরুয়া শিবির। মধ্যেই দলের ত্যাগী বিধায়কদের দলে ফিরে আসার জন্য আবেদন করলেন নয়া রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর এই প্রথম ধাক্কা দিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি পদে থাকা মুকুল রায়। এরপর ধীরে ধীরে একে একে তন্ময় ঘোষ, বিশ্বজিৎ দাস, সৌমেন রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন। এরপর আজ কৃষ্ণ কল্যাণী বিজেপি ত্যাগ করে তৃণমূলের আসেন। বিজেপির বিধায়ক এর সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ৭০। বিগত পাঁচ মাসে ৫ জন বিধায়ক দলত্যাগ করেছেন।

এ দিন নয়া রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, “আমরা বিধায়কদের সঙ্গে কথা বলছি, আলোচনা করছি। আমাদের বিশ্বাস যারা ভারতীয় জনতা পার্টির বিশ্বাস নিয়ে এতদিন দলে ছিলেন তারা আবার ফিরে আসবেন।” যদিও বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, যে কেন্দ্র থেকে বিধায়করা সরে গিয়েছেন সেখানে উপনির্বাচন হবে। আর তাতে ফের জয়ী হবে বিজেপি।

এদিকে বিজেপি থেকে এক এক করে বিধায়কদের দল ছেড়ে চলে আসাকে কটাক্ষ করেছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, “হারাধনের দশটি ছেলের মতোই অবস্থা হয়েছে বিজেপির। যারা সত্যিই বাংলার জন্য কাজ করতে চায় তারা বিজেপিতে থাকতে পারছেননা। তাই চলে আসছেন”।