শিবরাত্রি উপলক্ষে গঙ্গাস্নানে এসে, নদিয়ায় জলে ডুবে মৃত্যু স্কুল পড়ুয়ার

শিবরাত্রি উপলক্ষে গঙ্গাস্নানে এসে, নদিয়ায় জলে ডুবে মৃত্যু স্কুল পড়ুয়ার
শিবরাত্রি উপলক্ষে গঙ্গাস্নানে এসে, নদিয়ায় জলে ডুবে মৃত্যু স্কুল পড়ুয়ার / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি নদিয়াঃ শিবরাত্রি উপলক্ষে গঙ্গাস্নানে এসে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল নদিয়ায়। এদিন শিবরাত্রি উপলক্ষে, উপোস করে, গঙ্গাস্নান করতে গিয়ে ভাগীরথী নদীর জলে তলিয়ে গেল এক কিশোর।

বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার রামনগর ঘাটে। মৃত কিশোরের নাম অনির্বাণ সিং বয়স ১৫, রামনগর হাইস্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্র সে। শক্তিপুর থানার বাছড়া গ্রামের বাসিন্দা অনির্বাণ সিং। উল্লেখ্য, নদিয়া ও মুর্শিদাবাদের সীমানা এই ভাগীরথী নদী। মুর্শিদাবাদ লাগোয়া এই রামনগর ঘাটেই আজ স্নান করতে যায় ওই স্কুল ছাত্র।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে যে, এদিন দুপুরে বন্ধুদের সঙ্গে রামনগর ঘাটে গঙ্গাস্নানে বার হয় অনির্বাণ। সাঁতার না জানায়, তাঁকে পরিবারের পক্ষ থেকে গঙ্গাস্নানে যেতে নিষেধও করা হয়েছিল। কিন্তু অনির্বাণ পরিবারের নিষেধ অমান্য করেই গঙ্গাস্নানে বেরিয়ে পড়ে।

স্নান করার সময় হঠাৎ করেই জলে হাবুডুবু খেতে থাকে অনির্বাণ, বাঁচানোর জন্য আর্তনাদ করতে থাকলেও, সেই সময় কেউ এগিয়ে আসেনি সাহায্যের জন্য। তেমনটাই সূত্রের খবর। এরপরই পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে ছুটে আসেন রামনগর ঘাটে, সেখানে শক্তিনগর থানার পক্ষ থেকে মাছ ধরার জাল ও ডুবুরি নামানো হয় ভাগীরথীতে। এর পাশাপাশি নৌকা দিয়েও মৃতদেহ উদ্ধারের কাজ চলে। তবে, এদিন বিকেল পর্যন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, এই ঘাটে বহু মানুষের সমাগম হয়, গঙ্গাস্নানের জন্য। তাই এই ঘটনায় প্রশ্ন উঠছে গঙ্গাস্নানে আসা শয়ে শয়ে মানুষের মধ্যেও কেন মৃত্যুর আর্তনাদ শুনেও, কেউ অনির্বাণের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এল না। পাশাপাশি যখন শিবরাত্রি উপলক্ষে হাজারো মানুষের ভিড় জমে এই ঘাটে, তখন সেখানে কেন পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়নি প্রশাসনের পক্ষ থেকে? সেই প্রশ্নও উঠছে এই ঘটনার পর।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.