পুজোর আগেই কি উপ নির্বাচন? আজ মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকে কমিশন

পুজোর আগেই কি উপ নির্বাচন? আজ মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকে কমিশন
পুজোর আগেই কি উপ নির্বাচন? আজ মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকে কমিশন

বারবার উপ নির্বাচন করানোর দাবি নিয়ে কমিশনের দ্বারস্ত হয়েছে তৃণমূল। এবার তাই কবে উপ নির্বাচন করানো যেতে পারে তাই নিয়ে আজ বুধবার রাজ্যের মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীর সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে কমিশনের। রাজ্যে উপনির্বাচন এই মুহূর্তে আদৌ কি সম্ভব? এই মুহূর্তে রাজ্যের কী অবস্থা, করোনার হাল কেমন, এখন উপনির্বাচন করা গেলে কী ভাবে তা করা যাবে? মূলত এই সব প্রশ্নের উত্তর জানতেই এদিনের বৈঠক।

ভোট করানো নিয়ে একাধিকবার নির্বাচন কমিশনের কাছে দরবার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বাংলায় এখন করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এই দাবিতে দ্রুত উপ নির্বাচন করানোর জন্যে আর্জি জানিয়েছে তাঁরা। এদিকে এখনই বিজেপি ভোট করাতে নারাজ। দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারীদের বক্তব্য, রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি চলছে বলে রাজ্য সরকার লোকাল ট্রেন বন্ধ করে রেখেছে। বাসও চলছে কম। একাধিক বিধি নিষেধ এখনও বলবৎ রাজ্যে।

কমিশন সূত্রে খবর, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে পাঁচ আসনে উপনির্বাচন এবং দুই আসনে পূর্ণাঙ্গ নির্বাচন সেরে ফেলতে চায় কমিশন। যদি সব কিছু ঠিক থাকে তবে সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতেই উপনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করে দিতে পারে কমিশন।

বুধবার সেই বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। এদিনের বৈঠকে থাকার কথা কমিশনের সেক্রেটারি জেনারেল উমেশ সিনহা, উপনির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন, চন্দ্রভূষণ কুমার। এছাড়াও থাকতে পারেন আরও দুই উপনির্বাচন কমিশনার ধর্মেন্দ্র শর্মা, নীতিশ কুমার ভ্যাস-সহ অন্য আধিকারিকও। মনে করা হচ্ছে, অক্টোবর ও নভেম্বর যেহেতু উৎসবের মরসুম তাই তার আগেই পাঁচ কেন্দ্রের উপনির্বাচন এবং দুই কেন্দ্রের নির্বাচন সেরে ফেলা হতে পারে।