লকডাউনে ভারতে কন্ডোমের বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ, গর্ভনিরোধক ওষুধ ও সেক্সটয়ের চাহিদাও তুঙ্গে

লকডাউনে ভারতে কন্ডোমের বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ, গর্ভনিরোধক ওষুধ ও সেক্সটয়ের চাহিদাও তুঙ্গে
লকডাউনে ভারতে কন্ডোমের বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ, গর্ভনিরোধক ওষুধ ও সেক্সটয়ের চাহিদাও তুঙ্গে

লকডাউনে গৃহবন্দী মানুষ। কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলেও বাড়ি থেকেই কাজ করছেন বেশিরভাগ মানুষ। অন্যান্য সময়ের তুলনায় স্বাভাবিক ভাবেই একে অন্যের জন্য বেশি সময় পাচ্ছেন যুগলরা। লকডাউনের সময় ভারত জুড়ে বেড়েছে কন্ডোম, গর্ভনিরোধক ওষুধ ও সেক্সটয়ের চাহিদা, সম্প্রতি এক সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই তথ্য।

লকডাউনের সময় ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে সমীক্ষা চালায় ‘দ্যাটস পার্সোনাল’ নামক একটি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম।

এই সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, বিগত দু-তিন মাস লকডাউনের সময় ভারতে কন্ডোমের বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ। সংস্থার তরফে জানানো হয়, এই সমীক্ষা করতে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছিল প্রায় ২ কোটি ২০ লক্ষ ক্রেতার থেকে ।

সমীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী, কন্ডোম, গর্ভনিরোধক ওষুধ ও সেক্সটয়ের চাহিদা সব থেকে বেশি মুম্বই শহরে। এরপরে দ্বিতীয়, তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানে রয়েছে যথাক্রমে বেঙ্গালুরু, নয়া দিল্লি এবং পুনে।

রাজ্যের নিরিখে কন্ডোম, সেক্সটয়ের চাহিদা সর্বাধিক মহারাষ্ট্রে। তারপরেই রয়েছে কর্ণাটক ও তামিলনাড়ু।

সমীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী, মহিলারা বেশিরভাগ বেলা ১২টা থেকে দুপুর ৩টে পর্যন্ত কন্ডোম, গর্ভনিরোধক ওষুধ কিনতে যান। রাত ৯-টার পর দোকানে ভিড় করেন পুরুষদেরা।

শুধু তাই নয়, ২৫ থেকে ৩৫ বছর বয়সী যুবক- যুবতীদের মধ্যে সেক্সটয় কেনার ঝোঁক সর্বাধিক, সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনটাই।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.