গত ২৪ ঘণ্টায় ফের নিম্নমুখী রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ!

গত ২৪ ঘণ্টায় ফের নিম্নমুখী রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ!
গত ২৪ ঘণ্টায় ফের নিম্নমুখী রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সামনেই রয়েছে দুর্গাপুজো। এদিকে পুজোর আগে রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণে এবং মৃত্যুর সংখ্যায় ওঠানামা অব্যাহত। যদিও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এখন অনেকটাই স্তিমিত। আবার, তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আগে ফের নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বাড়তে থাকা সংক্রমণ। তবে, গত ২৪ ঘণ্টায় আবারও নিম্নমুখী রাজ্যে করোনার দৈনিক সংক্রমণ।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭০১ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ কম। গতকাল রাজ্যে করোনার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭৬১ জন। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সংক্রমণের নিরিখে এদিনও প্রথম স্থানে রয়েছে কলকাতা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৪৫ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ সামান্য কমেছে। গতকাল কলকাতার দৈনিক সংক্রমণ ছিল ১৪৯ জন। সংক্রমণের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগণা জেলা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১১৬ জন। কলকাতার মতো এই জেলাতেও অতি সামান্য কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা গত ২৪ ঘণ্টায়। গতকালই এই জেলাতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১২৪ জন। এছাড়া বাকি সব জেলা থেকেই গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা আক্রান্তের খবর এসেছে। এই মুহূর্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে, ১৫ লক্ষ ৭১ হাজার ২৪০ জন।

স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ১০ জন। গতকাল রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছিল ৯ জনের। এদিকে, রাজ্যে একদিনে করোনায় মৃত্যুর নিরিখে শীর্ষে উঠে এসেছে উত্তর ২৪ পরগণা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩ জন। মৃত্যুর সংখ্যার নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কলকাতা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা। এই দুই জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ২ জন করে প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়াও গত ২৪ ঘণ্টায় হুগলি, পূর্ব বর্ধমান এবং নদীয়া জেলাতে করোনায় ১ জন প্রাণ হারিয়েছেন। রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৮ হাজার ৮২৫ জন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৬৮৪ জন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন মোট ১৫ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮২৮ জন। এই মুহূর্তে রাজ্যে মোট চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৭ হাজার ৫৮৭ জন। পাশাপাশি করোনার তৃতীয় ঢেউ রুখতে কোভিড পরীক্ষায় জোর দেওয়া হচ্ছে রাজ্যে।