গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সংক্রমণ অতি সামান্য বাড়লেও, ১৯২ দিন পর সর্বনিম্ন অ্যাকটিভ কেস

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সংক্রমণ অতি সামান্য বাড়লেও, ১৯২ দিন পর সর্বনিম্ন অ্যাকটিভ কেস
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সংক্রমণ অতি সামান্য বাড়লেও, ১৯২ দিন পর সর্বনিম্ন অ্যাকটিভ কেস / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আগে, দেশে করোনা গ্রাফে ওঠানামা অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিন একটু একটু করে বাড়ছে সংক্রমণ, আবার কখনও তা কমছে। এরই মধ্যে আবার সামনেই করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে, উৎসবের মরশুমে করোনা নিয়ে বিশেষ সতর্ক কেন্দ্রের মোদী সরকার। তাই সংক্রমণ ঠেকাতে জোর দেওয়া হচ্ছে করোনাবিধিতে। পাশাপাশি গতি বাড়ানো হচ্ছে টিকাকরণের উপর। এরই মধ্যে গতকালই স্বস্তি দিয়ে ২০১ দিন পরে দেশের করোনার দৈনিক সংক্রমণ ২০ হাজারের নিচে নেমেছিল। আজও সেই স্বস্তি বজায় রয়েছে। এদিনও সংক্রমণ ১৯ হাজারের নিচেই রয়েছে। এর পাশাপাশি স্বস্তি মিলেছে অ্যাকটিভ কেসও। ১৯২ দিন পর দেশের অ্যাকটিভ কেস সর্বনিম্ন।

বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজার ৮৭০ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ সামান্য বেশি। গতকাল দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮ হাজার ৭৯৫ জন। এই মুহূর্তে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৩৭ লক্ষ ১৬ হাজার ৪৫১ জন। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩৭৮ জন। এই সংখ্যা গতকালের থেকে বেশি। গতকাল দেশে করোনায় দৈনিক মৃতের সংখ্যা ছিল ১৭৯ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার বলি ৪ লক্ষ ৪৭ হাজার ৭৫১ জন।

সংক্রমণ কমার পাশাপাশি কমেছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যাও। সংক্রমণ কমার পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় বড়সড় স্বস্তি দিয়েছে করোনার অ্যাকটিভ কেসে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, বর্তমানে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ২ লক্ষ ৮২ হাজার ৫২০ জন। যা গত ১৯২ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। করোনার বিরুদ্ধে আশার আলো দেখাচ্ছেন করোনাজয়ীরাই। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২৮ হাজার ১৭৮ জন। দৈনিক আক্রান্তের থেকে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা অনেকটাই বেশি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে করোনাকে পরাস্ত করে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৩ কোটি ২৯ লক্ষ ৮৬ হাজার ১৮০ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন।

এদিকে, টিকাকরণের গতি বাড়িয়ে সংক্রমণ ঠেকানোর প্রয়াস জারি রয়েছে দেশজুড়ে। ৮৭ কোটি ৬৬ লক্ষেরও বেশি মানুষ এখন ভ্যাকসিনের আওতায়। যার মধ্যে গতকালই টিকা পেয়েছেন প্রায় সাড়ে ৫৪ লক্ষের বেশি নাগরিক। গতকাল দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ লক্ষের বেশি।