গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের করোনা গ্রাফ আরও খানিকটা নামল! কমল দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের করোনা গ্রাফ আরও খানিকটা নামল! কমল দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের করোনা গ্রাফ আরও খানিকটা নামল! কমল দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর, দেশে ঝড়ের গতিতে বাড়তে শুরু করেছিল করোনার সংক্রমণ। তবে, এখন দেশে করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। সংক্রমণ কমার পাশাপাশি বেড়েছে সুস্থতার হারও। তাও, তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আগে, দেশে করোনা গ্রাফে ওঠানামা অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিন একটু একটু করে বাড়ছে সংক্রমণ, আবার কখনও তা কমছে। এরই মধ্যে আবার সামনেই করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তার আগে কিছুতেই যেন বাগে আসতে চাইছে না করোনার সংক্রমণ। কেরল, মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি যে উদ্বেগজনক তা স্বীকার করে নিয়েছে কেন্দ্রও। তবে, এত উদ্বেগের মাঝেও দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণে ভালরকম স্বস্তি মিলল রবিবার। রবিবার এক ধাক্কায় প্রায় সাত হাজার কমে যায় অ্যাকটিভ কেস। পাশাপাশি ফের অনেকটাই কমে করোনার দৈনিক সংক্রমণ। এরপর গত ২৪ ঘণ্টায় ফের করোনা গ্রাফ কিছুটা নামল। সংক্রমণ এবং মৃত্যুর সংখ্যা কমার পাশাপাশি কমেছে অ্যাকটিভ কেসও।

সপ্তাহের প্রথম দিন, সোমবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৭ হাজার ২৫৪ জন। গতকালের থেকে সংক্রমণ ফের কমেছে। গতকাল দেশে করোনার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৫৯১ জন। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৬৪ হাজার ১৭৫ জন। তবে, দেশের মোট আক্রান্তের এই সংখ্যার প্রায় বেশিরভাগই কেরলের। কেরলের এই করোনা গ্রাফ তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা জাগাচ্ছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মোট আক্রান্ত ২৭ হাজার ২৫৪ জনের মধ্যে ২০ হাজার ২৪০ জনই কেরলের বাসিন্দা। কেরলে একদিনে করোনার বলি ৬৭ জন। তবে, সংক্রমণের লাগাম পরানো না গেলেও, করোনার ছোবল থেকে সুস্থ করে তোলা সম্ভব হচ্ছে অনেককেই।

অন্যদিকে দেশে একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ২১৯ জন। এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে অনেকটাই কম। গতকাল দেশে করোনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ৩৩৮ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার বলি ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৮৭৪ জন।

গতকালের পর আজও নিম্নমুখী অ্যাকটিভ কেস। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, বর্তমানে দেশে এই মুহূর্তে দেশে করোনা অ্যাকটিভ কেস ৩ লক্ষ ৭৪ হাজার ২৬৯ জন। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আশার আলো দেখাচ্ছেন করোনাজয়ীরাই। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবল থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৭ হাজার ৬৮৭ জন। দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় অনেকটাই বেশি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৩ কোটি ২৪ লক্ষ ৪৭ হাজার ০৩২ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, করোনার তৃতীয় ঢেউ আটকাতে দেশজুড়ে জোরকদমে চলছে টিকাকরণ প্রক্রিয়া। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দাবি, ৬টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এবং প্রায় সবকটি রাজ্যেই প্রথম ডোজের টিকাকরণ ১০০ শতাংশ সম্পূর্ণ হয়েছে। ইতিমধ্যে দেশের ৭২ কোটি ৩৮ লক্ষ ৩৭ হাজার ৬৪৩ জনের টিকাকরণ হয়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টাতেই ৫৩ লক্ষের বেশি মানুষ ভ্যাকসিন পেয়েছেন। যদিও এরই মধ্যে উদ্বেগ বাড়িয়েছে কোভ্যাক্সিনের সংকট। এ রাজ্যে কোভ্যাক্সিন আপাতত মিলবে না বলে পুরসভার তরফে জানানো হয়েছে। সরবরাহ স্বাভাবিক হলে তবে ফের চালু হবে কোভ্যাক্সিনের টিকাকরণ।