দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা! খোঁজ মিলেছে ৭৯৫ টি বিলিতি স্ট্রেনের

দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা! খোঁজ মিলেছে ৭৯৫ টি বিলিতি স্ট্রেনের / প্রতীকী ছবি (Image Source: Facebook Post By @wbdhfw)
দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা! খোঁজ মিলেছে ৭৯৫ টি বিলিতি স্ট্রেনের / প্রতীকী ছবি (Image Source: Facebook Post By @wbdhfw)

ইতিমধ্যেই দেশে ঢুকে গিয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। সারা দেশে নতুন করে থাবা বসাচ্ছে করোনা। টিকাকরণ প্রক্রিয়া চালু থাকলেও বেশ কয়েকটি রাজ্যে লাফ দিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। এরই মধ্যে জানা গেল আরেকটি ভয়াবহ তথ্য! চলতি মার্চে দেশে বিদেশি স্ট্রেনের সংখ্যা একলাফে বেড়েছে অনেকটাই। ১৮ মার্চ পর্যন্ত দেশে বিদেশি স্ট্রেনের সংখ্যাটি ছিল ৪০০। ২৩ মার্চের মধ্যে তা বেড়ে ৭৯৫-তে পৌঁছে গিয়েছে। অর্থাৎ পাঁচদিনে বিদেশে স্ট্রেনের দাপট বাড়ল প্রায় দ্বিগুণ!

আজ, মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে ব্রিটেন, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ব্রাজিল সহ একাধিক স্থানের নতুন স্ট্রেনের খোঁজ মিলেছে। তার মোট সংখ্যা ৭৯৫। এদিনই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বলেন, জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য ৪০১টি নমুনা পাঠানো হয়েছিল। যার ৮১ শতাংশই ব্রিটেনের নতুন স্ট্রেন। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জন্য এই বিদেশি স্ট্রেনগুলিই দায়ী কিনা তা এখনও জানা যায়নি।

এর আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছিলেন, রাজ্যে নতুন স্ট্রেনের সংখ্যা সম্পর্কে রাজ্যের স্বাস্থ্যদফরের স্বচ্ছ ধারণা থাকা দরকার। কারণ, ক্রমশ বাড়তে থাকা করোনা রীতিমতো চিন্তার ভাঁজ ফেলছে চিকিৎসক থেকে প্রশাসনের মাথায়। যদিও এর মধ্যে চালু রয়েছে টিকাকরণ পদ্ধতি।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার, ক্যাবিনেট বৈঠকের পর প্রকাশ জাভড়েকর জানিয়েছেন, ১ এপ্রিল থেকে ৪৫ বছর বয়সী ও ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বের প্রত্যেক ব্যক্তিকে দেওয়া হবে ভ্যাকসিন। মূলত করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সংক্রমণ রুখতেই নেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত। পাশাপাশি,বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মতো জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের ওপরও জোর দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে দেশে পর্যাপ্ত ভ্যাকসিনও মজুত। ফলে জরুরিকালীন তৎপরতাতেই আপাতত টিকাকরণ এবং জিনোম সিকোয়েন্সিং জারি থাকবে, তাও জানিয়েছে কেন্দ্র।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.