পুজোর আগেই কি আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ? কী বলছে ICMR?

পুজোর আগেই কি আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ? কী বলছে ICMR?
পুজোর আগেই কি আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ? কী বলছে ICMR? / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব এখন শেষের দিকে। দেশের করোনা পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। ক্রমশ কমছে করোনার সংক্রমণ। দেশব্যাপী লকডাউন এবং কড়া বিধিনিষেধ জারির সুফল মিলেছে। তবে, এরই মধ্যে ক্রমশ বিস্তার ঘটছে করোনা ভাইরাসের উন্নত এবং সর্বশেষ ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট। ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনার ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট। তবে, পুজোর আগে আসবে না করোনার তৃতীয় ঢেউ। এমন আশ্বাসবাণীও মিলেছে। আর সেই আশ্বাসবাণী দিয়েছেন খোদ আইসিএমআর-এর কোভিড ওয়ার্কিং গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. এন কে আরোরা। কী বলছেন তিনি?

আইসিএমআর-এর কোভিড ওয়ার্কিং গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. এন কে আরোরা সরকারি প্যানেলে উল্লেখ করেছেন যে, ICMR-র পক্ষ থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা গেছে যে, এখনও ৬ থেকে ৮ মাস হাতে সময় আছে। এই সময়টা নষ্ট করলে, হিতে বিপরীত হবে। এই সময়ের মধ্যে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে হবে।

তিনি ১২ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে শিশু ও কিশোরদের টিকাকরণ সেরে রাখার কথা বলেন, সরকারি প্যানেলে। তাঁর কথায়, ‘আইসিএমআর-এর একটি সাম্প্রতিকের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ আসতে এখনও দেরি আছে। ততদিনে আশা করা হচ্ছে, একেবারে শেষ হয়ে যাবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের দাপট।’ তাঁর দাবি অনুযায়ী, পরের বছর জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। তিনি বলেন, ’১২ থেকে ১৮ বছরের বয়সে শিশুদের টিকাকরণের পাশাপাশি প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাদানের কাজ সম্পূর্ণ করতে হবে।’

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘দেশে জাইডাস ক্যাডিলার টিকার পরীক্ষামূলক’ প্রয়োগ প্রায় শেষ। সব ঠিকঠাক থাকলে, জুলাইয়ের শেষ ও আগস্টের শুরু থেকে আরও বেশি সংখ্যায় মানুষের টিকাকরণ করা সম্ভব হবে। এই টিকাকরণের আওতায় এবার থাকবে শিশুদের একটি অংশ।