২ অক্টোবরের আগে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণার দাবি ধর্মগুরুর! অন্যথায় জল সমাধিতে যাওয়ার হুমকি

২ অক্টোবরের আগে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণার দাবি ধর্মগুরুর! অন্যথায় জল সমাধিতে যাওয়ার হুমকি
২ অক্টোবরের আগে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণার দাবি ধর্মগুরুর! অন্যথায় জল সমাধিতে যাওয়ার হুমকি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এক অদ্ভুত দাবি করে বসলেন জগৎগুরু পরমহংস আচার্য মহারাজ। শুধু দাবি করাই নয়, তা না নির্দিষ্ট সময়ের আগে পূরণ না হলে, মৃত্যুবরণের হুমকিও দিয়েছেন তিনি। জগৎগুরু পরমহংস আচার্য মহারাজ দাবি, আগামী ২ অক্টোবরের মধ্যে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করতে হবে। তাঁর এই দাবি মানা না হলে, জল সমাধির মাধ্যমে মৃত্যুবরণ করার হুমকিও দিয়েছেন তিনি।

সর্বভারতীয় সংবাদসংস্থা এএনআই-এর মাধ্যমে এই খবর প্রকাশ্যে এসেছে। বুধবার অযোধ্যায় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন পরমহংস আচার্য মহারাজ। তিনি বলেন, ‘২ অক্টোবরের মধ্য ভারতবর্ষকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানাচ্ছি। তা না হলে আমি সরযূ নদীতে জল সমাধি গ্রহণ করব।’ এর পাশাপাশি আরও একটি দাবি রয়েছে ধর্মগুরুর। তা জানাতে গিয়ে তিনি আরও বলেন যে, ‘কেন্দ্রের উচিত মুসলিম ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নাগরিকত্ব বাতিল করে দেওয়া।’

এদিকে, বছর পার করলেই উত্তরপ্রদেশে রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। আর ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই বিজেপির সবথেকে বড় পরীক্ষা এই রাজ্যের পাশাপাশি কেন্দ্রের জন্যও। আর সেটা বিবেচনা করেই, ঘর গোছাতে শুরু করে করেছে গেরুয়া শিবির। এই পরিস্থিতিতে প্রকাশ্যে এসেছে জগৎগুরু পরমহংস আচার্য মহারাজর এই অদ্ভুত দাবি। তবে, এটা প্রথমবার নয়, এর আগেও এই একই দাবি শোনা গিয়েছিল তাঁর মুখে। এর আগেও এই দাবিতে তিনি টানা ১৫ দিন অনশন করেছিলেন। পরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের আশ্বাসে নাকি তিনি অনশন ভাঙেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে পুনেতে পুলিশ সংগঠনের এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার সময়, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ-এর প্রধান মোহন ভাগবত দাবি করেছিলেন যে, ‘দেশের প্রতিটি নাগরিকই আসলে হিন্দু। কেননা তাঁদের পূর্বপুরুষ এক। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘হানাদারদের সঙ্গেই ইসলাম ধর্ম ভারতে এসেছিল। এটাই ইতিহাস। আর সেটাকে এভাবেই দেখা উচিত।’ দেশের হিন্দুরা কাউকেই শত্রু বলে মনে করে না বলে, জানিয়ে মোহন ভাগবত জানিয়েছিলেন, এদেশের মুসলমানদের কোনও আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। তিনি বলেন, “‘আমরা এক নই, আমরা আলাদা’ বলে যারা বলে যারা দেশকে ভাঙতে চাইছে, তাদের ফাঁদে কারও পা দেওয়া উচিত নয়। আমরা এক জাতি। আমরা এক জাতি হিসেবেই থাকব।’’