‘স্বামীকে চুমু খাব, পারলে আটকে দেখান!’ কোভিড বিধি শিঁকেয় তুলে পুলিশের সঙ্গে তর্ক মহিলার

'স্বামীকে চুমু খাব, পারলে আটকে দেখান!' কোভিড বিধি শিঁকেয় তুলে পুলিশের সঙ্গে তর্ক মহিলার
'স্বামীকে চুমু খাব, পারলে আটকে দেখান!' কোভিড বিধি শিঁকেয় তুলে পুলিশের সঙ্গে তর্ক মহিলার

দেশে করোনা ভাইরাস বলে নাকি আদতে কিছুই নেই। ভাইরাসের ‘গল্প’ বলে নাকি মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। হ্যাঁ, করোনাকালীন অবস্থায় দেশের এই কঠিন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও এমনটাই মত দিল্লির এক দম্পতির। শুধু তাই নয়, প্রকাশ্য রাস্তায় কোভিড বিধি শিঁকেয় তুলে পুলিশে সঙ্গে বচসাতেও জড়ালেন স্ত্রী! তাঁর বক্তব্য- “আমার স্বামীকে আমি রাস্তায় চুমু খাব। পারলে আটকে দেখান।” সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই একটি ভিডিও। যা দেখে দম্পতিটির প্রতি সমালোচনায় ফেটে পড়েছেন নেটজনতা।

ঘটনাটি ঘটে রবিবার, দিল্লিতে। সপ্তাহান্তের বিকেলে স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন ওই মহিলা। যদিও তাঁদের কাছে ছিল না কোনও ই-পাস। গাড়িতে থাকলেও মুখে ছিল না মাস্ক। প্রসঙ্গত, দিল্লিতে ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে কারফিউ। এর ফলে নিয়মানুসারে শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবাই চালু থাকবে। বাইরে বেরোতে জন্য আবশ্যিক ভাবে লাগবে বিশেষ কার্ফু ই-পাস। সেই সঙ্গে গাড়ির মধ্যেও মাস্ক পরে থাকা বাধ্যতামূলক। কিন্তু সেইসব কোভিড বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই রাস্তায় বেরিয়েছিলেন ওই দম্পতি।

এরপরই চেকিংয়ের সময় তাঁদের গাড়ি আটকান পুলিশ। তখনই পুলিশের সঙ্গে রীতিমতো বচসায় জড়িয়ে পড়েন স্ত্রী। “স্বামীকে রাস্তাতেই চুমু খাব” বলার পাশাপাশি তাঁকে এও বলতে শোনা যায়, “করোনা ভাইরাস বলে কিছু নেই। সাধারণ মানুষকে এমনিই নাজেহাল করা হচ্ছে।” পাশাপাশি যে পুলিশেরা রাস্তা আটকেছেন তাঁদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি ও অপমানও করেছেন ওই দম্পতি। জানা গিয়েছে, দুজনের নাম পঙ্কজ দত্ত ও আভা দত্ত। ইতিমধ্যেই দুজনকে গ্রেপ্তারও করেছে পুলিশ। অন্যদিকে ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ পাওয়া মাত্রই ক্ষোভে ফুঁসছেন নেটজনতাও। দম্পতিটির তীব্র সমালোচনা করে তাঁদের কাজের নিন্দাও করেন সকলে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.