এই ক’দিনের মধ্যেই আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড়, উপকূলের জেলায় জারি ভারী বৃষ্টি ও ঝড়ের সতর্কতা!

এই ক’দিনের মধ্যেই আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড়, উপকূলের জেলায় জারি ভারী বৃষ্টি ও ঝড়ের সতর্কতা!
এই ক’দিনের মধ্যেই আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড়, উপকূলের জেলায় জারি ভারী বৃষ্টি ও ঝড়ের সতর্কতা! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ আবারও নিম্নচাপের ভ্রূকুটি। মঙ্গলবার থাইল্যান্ড উপকূলে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছিল। এদিন ওই নিম্নচাপটি আন্দামান সাগরের উপর অবস্থান করছে। জানা গিয়েছে, ওই নিম্নচাপ ক্রমশ উত্তর-পশ্চিম দিকে সরবে এবং নিজের শক্তি বাড়াচ্ছে। আগামী ২ ডিসেম্বর তা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। এরপর উত্তর-পশ্চিম দিকে এগোতে শুরু করবে ওই নিম্নচাপ। পরে তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে।

এর জেরে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির কারণে বাঁধা পাবে শীত। উপকূলের কয়েকটি জেলায় প্রবল ঝড়-বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, পূর্বাভাস অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই ঝোড়ো হাওয়া বইতে শুরু করেছে উপকূলবর্তী এলাকায়। দক্ষিণ আন্দামান সাগরে প্রতিঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার ঝড়ো হাওয়া বইছে। আজ, বুধবার পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং আন্দামান সাগরে ঝড়-ঝঞ্ঝার পূর্বাভাস রয়েছে।

চলতি সপ্তাহের শুক্রবার থেকে রাতের তাপমাত্রা ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি বাড়তে পারে। এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই ঠাণ্ডা কমে যাবে। ঘূর্ণিঝড়ের ফলে ৩ ডিসেম্বর থেকে দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম ও হাওড়ায় অল্প বৃষ্টি হবে। ৪ ডিসেম্বর বৃষ্টির দাপট বাড়বে। কলকাতা, দুই ২৪ পরগণা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া এবং ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। ৫ ডিসেম্বর বৃষ্টির দাপট বাড়বে। উপকূলবর্তী জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি এবং ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা। ৬ ডিসেম্বরও বৃষ্টিপাত হতে পারে।

উত্তরবঙ্গের মালদহ, দুই দিনাজপুর, কালিম্পয়েও বৃষ্টি হতে পারে। শুক্রবার থেকে রাতের তাপমাত্রা ৩-৪ ডিগ্রি বাড়তে পারে। ইতিমধ্যে প্রশাসনের তরফে মৎস্যজীবীদের সমুদ্র যেতে নিষেধ করা হয়েছে।