১০ দিনের দিল্লি সফরে দিলীপ! নিছকই অবসর নাকি ফের কেন্দ্রীয় তলব উঠছে প্রশ্ন

১০ দিনের দিল্লি সফরে দিলীপ! নিছকই অবসর নাকি ফের কেন্দ্রীয় তলব উঠছে প্রশ্ন
১০ দিনের দিল্লি সফরে দিলীপ! নিছকই অবসর নাকি ফের কেন্দ্রীয় তলব উঠছে প্রশ্ন

ফের দিল্লি সফরের উদ্দেশে রওনা দিলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বুধবার সকাল ৬টার বিমানে ১০ দিনের জন্য দিল্লি গেলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি। এই কদিনের মধ্যে তাঁর ঘন ঘন দিল্লী যাওয়া সাওয়াবিক ভাবেই জল্পনা বাড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও তাঁর দাবি লম্বা ছুটি কাটাতেই তিনি যাচ্ছেন।

শুক্রবার রাতেই সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার তলবে দিল্লী গিয়েছিলেন তিনি। এরপর সেখানে তার সঙ্গে বৈঠক সেরে রবিবারই ফেরেন। এরপর দুদিন যেতে না যেতেই ফের তার দিল্লিতে পাড়ি বহু প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে। এদিকে সূত্রের খবর, সংসদীয় টিমের সঙ্গে তার কাশ্মীর যাওয়ার কথাও রয়েছে। এদিন কলকাতা বিমান বন্দরে তিনি জানান, একেবারে সাংসদ অধিবেশন সেরেই ফিরবেন।

কলকাতা বিমান বন্দরে দিলীপ ঘোষ

প্রসঙ্গত, গতকাল সন্ধ্যে বেলা ভাটপাড়ার ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের বিদায়ী তৃণমূল কাউন্সিলর হিমাংশু সরকারের সহযোগী সৌরভ অধিকারীকে লক্ষ্য করে এই গুলি চলে। এই ঘটনাটিকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে আখ্যা দিয়েছেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। যদিও, ওনার দাবি নস্যাৎ করে তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক নির্মল ঘোষ পাল্টা এই কাণ্ডের জন্য বিজেপিকে দায়ী করেছেন। এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ জানান, “ভাটপাড়া সহ পুরো ব্যারাকপুর এলাকা উপদ্রুত হয়ে গিয়েছে। অর্জুন সিং যবে থেকে বিজেপি জয়েন করেছে তবে থেকে তাকে টার্গেট করা হচ্ছে। তাকে ভয় ও আতঙ্কের মধ্যে রাখা হচ্ছে। তার লোকজনদেরকেও টার্গেট করা হচ্ছে। ব্যারাকপুরে অর্জুন সিং কে যাতে ডিস্টার্ব করা যায় সেইকারণে পুলিশ অফিসারও নিয়োগ করা হয়”।

এদিকে গতকাল দিলীপ ঘোষের সামনেই বিজেপির আদি নব্য গোষ্ঠী দ্বন্দ প্রকাশ্যে আসে। এই বিষয়ে তাঁর মন্তব্য, ” বর্ধমানে গতকালের ঘটনায় কিছু লোক পার্টিকে ডিস্টার্ব করছে। প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যারা এদের সাপোর্ট করছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে”।

অন্যদিকে, মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান করা নিয়ে বিধানসভার আটটি কমিটির থেকে বিজেপি বিধায়করা পদত্যাগ করেছেন। এই সম্পর্কে রাজ্য বিজেপি সভাপতির বক্তব্য, “এই সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া হয়েছিল। সরকার যেভাবে চলছে এছাড়া রাস্তা ছিল না”।