“রাজ্যে ভ্যাকসিন নিয়ে সিন্ডিকেট চলছে” সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব দিলীপ ঘোষ

“রাজ্যে ভ্যাকসিন নিয়ে সিন্ডিকেট চলছে” সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব দিলীপ ঘোষ
“রাজ্যে ভ্যাকসিন নিয়ে সিন্ডিকেট চলছে” সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব দিলীপ ঘোষ

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ ভ্যাকসিন নিয়ে কালোবাজারি চলছে। বৃহস্পতিবার এই মর্মেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর অভিযোগ, রাজ্যে ভ্যাকসিন সিন্ডিকেট চলছে। এদিকে রাজ্যের শাসক দল বারবার ভ্যাকসিন না পাওয়ার অভিযোগ করেছে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। এরই সাথে দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করে বলেন,”ভ্যাক্সিন কান্ডে প্রশাসনের সবাই জড়িত। ভ্যাক্সিনের সিন্ডিকেট চলছে। নেতা, বিধায়ক, সাংসদ সবাই জড়িত। একটা কালোবাজারি চলছে। সবাই জানলেও চুপ করে আছে। ভ্যাক্সিন নিয়ে অকারণ কেন্দ্রের দোষ দেওয়া হচ্ছে। অথচ কত ভ্যাক্সিন এসেছে তার হিসাব দেওয়া হচ্ছে না”।

এরপরই আজ শুক্রবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ ভ্যাকসিন কাণ্ড নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন। নিজের ফেসবুক হ্যান্ডেল থেকে একটি পোস্ট করেন তিনি। পোস্টের ক্যাপশনে হ্যাশট্যাগ দিয়ে ভ্যাকসিন সিন্ডিকেট অফ টিএমসি লেখেন। এবং পোস্ট এ লেখেন, “এতদিন অন্যান্য বিষয়ে সিন্ডিকেট চলত। এখন ভ্যাকসিনের বিষয়ে সিন্ডিকেট চলছে।““এখানে এসএসসি, টেট, সিভিক পুলিশের চাকরির জন্য পয়সা নেওয়া হয়। ভ্যাকসিন পড়ে থাকছে, দেওয়া হচ্ছে না – উদ্দেশ্য ক্রাইসিস তৈরি করা। হাতবদল হয়ে চড়া দামে ভ্যাকসিন বিক্রি করা হচ্ছে।”

এরই সাথে পোস্টে লেখেন, “এরমধ্যে তৃণমূল নেতাদের হাত আছে। ভুয়ো ভ্যাকসিনের ঘটনা পুরো সাজানো, তৃণমূলের লোক এর সঙ্গে যুক্ত আছে। আর এবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবী জানান, কেন্দ্র থেকে রাজ্যের কাছে কত ভ্যাকসিন এসেছে, কত পরিমাণ ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে, কত পরিমাণ ভ্যাকসিন নষ্ট হয়েছে ও কত পরিমাণ ভ্যাকসিন এখনও রাজ্যের কাছে আছে সেসব বিষয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশ করার কথা জানান তিনি। এতে দুর্নীতি ধরা পড়বে বলেই মনে করছেন তিনি।

প্রসঙ্গত মঙ্গলবার কসবার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে করোনা টিকাকরণের একটি ক্যাম্প আয়োজিত হয়েছিল। তবে অভিযোগ উঠেছে ভুয়ো আইএএস পরিচয়ে দেবাঞ্জন দেব ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প চালাচ্ছিলেন সেখানে। আর এই খবর সামনে আনেন তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। তিনি সেদিন ওই ক্যাম্পে প্রথম ডোজ নেন। এবং টিকা নেওয়ার পর সার্টিফিকেট না পাওয়ায় তাঁর সন্দেহ হয়। এবং তিনি বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখতেই ধরা পরে এই ভুয়ো ভ্যাকসিনেশনের বিষয়টি। খবর প্রকাশ্যে আসতেই জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজ্য জুড়ে। রাজ্য সরকারকে নিশানা করতে পিছপা হননি বিজেপি।