ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপ ঘোষের
ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

রাজ্য পঞ্চম দফার ভোট মোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে মিটলেও প্রতিহিংসা দেখা গিয়েছে বিভিন্ন প্রান্তে। আর এই নিয়ে ফের একবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তার কথায় পুলিশের সঙ্গে গুন্ডাদের পুরনো সম্পর্ক রয়েছে”।

শনিবার পঞ্চম দফার ভোট মেটার পরে উত্তর ২৪ পরগনার মিনাখাঁয় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। মিনাখা সংলগ্ন সন্দেশখালিতে আক্রান্ত হন বিজেপি কর্মীরা। তাদের অভিযোগ তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীর বাড়িতে রাতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে। অন্যদিকে রাতের দিকে সল্টলেকের দত্তাবাদ থেকেও তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষের খবর মিলেছে। এই ঘটনায় যথা সময় পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাওয়ায় পরিস্থিতি সামাল দেওয়া সম্ভব হয়েছে। আবার উত্তর ২৪পরগনার পানিহাটি কেন্দ্রের ঘোলায় ব্যাপক বোমাবাজি হয় রাতে। স্থানীয়দের মধ্যে ইতি মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। আমি কোন রাজনৈতিক দলের তরফে বোমাবাজি করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে কিছু জানান স্থানীয় বাসিন্দারা।

বিক্ষিপ্ত এই ঘটনাগুলো প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “ভোট-পরবর্তী হিংসা হয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে পরিচালনা করে রাজ্য পুলিশ। শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা করা পুলিশের কাজ। তারা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করাতে এসেছে। আর তা না হলে ৮০ শতাংশের বেশি ভোট হয় না।” এরপর এই বিস্ফোরক মন্তব্য করে দিলীপ বাবু বলেন, “পুলিশের সঙ্গে গুন্ডাদের পুরনো সম্পর্ক রয়েছে তাই জন্য কিছু বলতে পারছেনা। তাই সেই এলাকায় অশান্তি হচ্ছে”।

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় বাহিনী আরএসএসের পতাকা লাগাচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগ করা হয়েছে সংযুক্ত মোর্চার তরফে। এই প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতির সাফাই , “অভিযোগ করতেই পারে। যদি আমরা মনে করি রামনবমীর পতাকা লাগাবো তাতে ওরা কি করতে পারে, রাম নবমীতে কারো নিষেধাজ্ঞা আছে নাকি”।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.