বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব চরমে! এবার দিলীপের নিশানায় অর্জুন সিং

বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব চরমে! এবার দিলীপের নিশানায় অর্জুন সিং
বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব চরমে! এবার দিলীপের নিশানায় অর্জুন সিং

একুশে বিধানসভা ভোটে লড়াই- এর আগে গেরুয়া শিবিরের অন্তর্দ্বন্দ্ব আরও প্রকট হয়ে উঠছে। নবীন-প্রবীণের এই দ্বন্দ্ব শেষ পর্যন্ত কতদূর যাবে তা নিয়ে রীতিমতো জল্পনা তৈরি হচ্ছে রাজনৈতিক মহলে।

সম্প্রতি দিল্লির বৈঠকে বিজেপি সাংসদ তথা তৃণমূলের প্রাক্তন নেতা অর্জুন সিং অভিযোগ করেছিলেন, তিনি দলের যোগ্য সম্মান পাচ্ছেন না। এদিকে এই ঘটনা কানে যাওয়া মাত্রই তৎক্ষণাৎ প্রতিক্রিয়া দেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন,যদি কেউ বলেন তিনি বিজেপিতে যোগ্য সম্মান পাচ্ছেন না, তাহলে বলতে হয় তৃণমূলের সামান্য কর্মীরা এখন বিজেপিতে যোগ দিয়ে কার্যকর্তা হয়েছেন।

এই বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অর্জুন সিং থেকে কার্যত কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ, তা আর বলার অবকাশ রাখে না। দিলীপ ঘোষ জানান, অর্জুন সিং-কে উত্তর কলকাতার পর্যবেক্ষক এবং রাজ্য সহ-সভাপতি পদ দেওয়া হয়েছে। যারা আগামী দিনে বিজেপিতে যোগদান করবেন তাদেরও একই ভাবে সম্মান দেওয়া হবে। পুরো ঘটনায় আদি বিজেপি এবং নব্য বিজেপির মধ্যে চলতে থাকা সংঘাত কার্যত প্রকাশ্যে এসেছে।

এদিকে দিল্লিতে বাবুল সুপ্রিয়র বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ নিয়েও জল্পনা রাজ্য রাজনীতিতে। যাঁরা এদিনের মধ্যাহ্নভোজে যোগ দিয়েছিলেন তারা বেশিরভাগই মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে এসেছিলেন যেমন সৌমিত্র খাঁ, অর্জুন সিং।তাৎপর্যপূর্ণভাবে দিলীপ ঘোষ এবং তার ঘনিষ্ঠ মহলে কেউই এই দিনের মধ্যাহ্নভোজের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না।

প্রকাশ্যে স্বীকার না করলেও এই ঘটনাগুলোকে এক সারিতে সাজালে এটা স্পষ্ট যে বিজেপির অন্দরে দুটি শিবিরের মধ্যে সংঘাতের তৈরি হয়েছে। এখন দেখার এই ফাটল পুনরায় জোড়া লাগিয়ে একুশের নির্বাচনে কি এক হয়ে কাজ করতে পারবে বঙ্গ বিজেপি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.