আজ কোথাও জমায়েত করবেন না! তৃণমূলকর্মীদের বার্তা মদন-জায়া ও ববি-কন্যার

আজ কোথাও জমায়েত করবেন না! তৃণমূলকর্মীদের বার্তা মদন-জায়া ও ববি-কন্যার
আজ কোথাও জমায়েত করবেন না! তৃণমূলকর্মীদের বার্তা মদন-জায়া ও ববি-কন্যার

সোমবার চার হেভিওয়েট নেতা ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নারদ মামলায় সিবিআই দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হলে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন কর্মী সমর্থকরা। চেতলা, নিজাম প্যালেস এবং রাজভবনের সামনে দলীয় কর্মী সমর্থকরা জামায়াত করে বিক্ষোভ দেখান। যার জেরে করোনা বিধিকে একেবারেই শিকেয় উঠতে দেখা গেছে। এরপরই বুধবার ওই চার নেতাকে হাইকোর্টে তোলার কথা হলে আগে থেকেই দলীয় কর্মী সমর্থকদের জমায়েত করতে না করেন ফিরহাদ হাকিমের কন্যা প্রিয়দর্শিনী হাকিম এবং মদন মিত্রের স্ত্রী অর্চনা মিত্র।

এক ভিডিও বার্তায় প্রিয়দর্শিনী হাকিম দলীয় কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশে অনুরোধ করে জানান, করোনাকালে এই ভিড় একেবারেই কাম্য নয়। তিনি বলেন, “যদি আপনারা ববি হাকিমকে ভালোবাসেন তাহলে করো না পরিস্থিতির কথা মাথায় রাখুন। বাংলায় কোনোভাবেই করোনা ছড়াতে দেবেন না ববি হাকিম আপনাদের এই কথাই বলতে চেয়েছেন। কেউ হাইকোর্টের সামনে ভিড় করবেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় যা খুশি লিখুন, কিন্তু কেউ বাইরে বের হবেন না ভিড় জমাবেন না”।

অন্যদিকে একই আবেদন করেছেন মদন মিত্রর স্ত্রী অর্চনা মিত্র। মদন মিত্রের ফেসবুক পেজ থেকে তিনি লিখেছেন, “মদন মিত্রের পক্ষ থেকে আমি ওঁর স্ত্রী, সমস্ত শুভবুদ্ধিসম্পন্ন সহকর্মী এবং বাংলার সমস্ত তৃণমূল কর্মীদের অনুরোধ করছি, বিধানসভা, কলকাতা হাইকোর্ট বা তার আশপাশে কোনও জমায়েত করবেন না। সংবিধান অনুযায়ী বিচারবিভাগের কাজ মসৃণ ভাবে পরিচালনা নিশ্চিত করতে বেঞ্চকে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করুন”।

প্রসঙ্গত,এই চার জনকে গ্রেফতার করায় সোমবার তৃণমূল কর্মীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় নিজাম প্যালেস চত্বর। মূলত সেই কারণেই এই চার হেভিওয়েটদের জামিনের নির্দেশে কলকাতা হাইকোর্ট স্থগিতাদেশ জারি করে দেয়। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বেনজির সংক্রমণের তোয়াক্কা না করে জমায়েত এবং নিজাম প্যালেসের ভিতরে ও আদালতে তৃণমূলের শীর্ষতম নেত্রী থেকে শুরু করে বাকিদের আনাগোনা, সব বিষয়কে সামনে রেখেই কার্যত বেশি রাতে এহেন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয় আদালত।

অন্যদিকে, এই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সিবিআই-এর হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দেয় বলেই মত রাজনৈতিক মহলের। সেই কারণেই আজ যাতে কোনও ভাবেই জমায়েত না হয় সেই কারণে অনুরোধ করেছেন এই দুই হেভিওয়েটের পরিজনেরা।