চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে বাকি রোগীদের সাহস যোগাচ্ছেন বাংলার এই সাংবাদিক

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ মালদাঃ দেশ তথা রাজ্যের জেলায় জেলায় বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আর এই মুহূর্তে পাল্লা দিয়ে মালদা জেলাতেও আক্রান্ত হচ্ছে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে ফ্রন্টলাইন যোদ্ধারা। এই মুহূর্তে মালদার কোভিড হাসপাতালে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎস্যাধীন রয়েছেন ডাক্তার, নার্স থেকে শুরু করে সমাজের সব স্তরের মানুষ। সেখানে করোনার সাথে লড়াই করছেন জেলার এক তরুণ লড়াকু প্রতিভাবান সাংবাদিক। যিনি এই মহামারীর আবহে একজন প্রকৃত দায়িত্বশীল সাংবাদিক হিসেবে মানুষকে সচেতন করতে গিয়ে নিজে আক্রান্ত হয়েছেন। প্রথম দিকে তার শারীরিক অবস্থা খারাপ থাকলেও ক্রমশ তিনি মনের জোরে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন। এই মুহূর্তে করোনা নিয়ে চারিদিকেই একটা আতঙ্কের পরিবেশ তৈরী হয়েছে, কিন্তু লড়াকু ওই সাংবাদিকের মতে ভয় দিয়ে করোনাকে জয় করা যাবে না। মনের জোরই করোনাকে হারানোর প্রধান হাতিয়ার, সকলের মনে জোরেই আমরা পারবো করোনাকে হারাতে।

নিজের কর্ম এবং দায়িত্বের প্রতি সদা নিষ্ঠাবান ওই সাংবাদিক তনুজ জৈন গতকাল একটি ভিডিও আপলোড করে, যে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে তার সাথে আরোও কয়েকজন আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন, যারা সকলে, ” আমরা করবো জয় ” গানের সাথে গলা মিলাচ্ছেন। মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যাই ভিডিওটি, সোশ্যাল মিডিয়াতে সকলে কুর্নিশ জানাই তনুজের এই মনের জোর এবং প্রচেষ্টাকে।

ভিডিওটিতে একজন বৃদ্ধাকেও দেখা গেছে আটষট্টি বছর বয়স ওই বৃদ্ধা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন। তিনিও খুব আপ্লুত, সাংবাদিকের এই উদ্যোগে সেই বৃদ্ধা মনে অনেক জোর পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন এবং এই মুহূর্তে সুস্থ আছেন। কোভিড হাসপাতালে পঁচিশ দিন ধরে চিকিৎস্যাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজের একজন ইন্টার্ন ডাক্তারও জানিয়েছেন মনের জোরই একমাত্র ওষুধ সচেতন হতে হবে ভীত নয় |

আর এই প্রসঙ্গে সাংবাদিক তনুজ জৈন বলেছেন আমি শ্বাস কষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়েছিলাম, অনেকটাই অসুস্থ ছিলাম এখন তুলনামূলক ভালো আছি মনে সাহস রাখতেই হবে, মনে বল নিয়ে লড়তে হবে। তিনি আশা প্রকাশ করেছেন সকলে মিলে করোনাকে ভয় নয়, জয় করবো আমরা করবো জয় নিশ্চয়। সাহসী, কর্তব্যপরায়ণ এই যোদ্ধার দ্রুত সুস্থতা কামনা করছে জেলার সাংবাদিক মহল থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ।

https://www.facebook.com/100001362830254/videos/3045371882184876/

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.