শীতে সুস্থ থাকতে পান করুন এই ঘরোয়া পানীয়, জেনে নিন

শীতে সুস্থ থাকতে পান করুন এই ঘরোয়া পানীয়, জেনে নিন
শীতে সুস্থ থাকতে পান করুন এই ঘরোয়া পানীয়, জেনে নিন

শীতকালে আমাদের ঠান্ডা লাগা বা বায়ুদূষণের ফলে নানান সমস্যা দেখা যায়। তার থেকে বাঁচতেই আজ আমরা নিয়ে এসেছি এই বিশেষ পানীয় গুলি। আমলা এবং আপেলের মিশ্রণ ফুসফুসের কার্যকারিতা উন্নত করে। এতে উপস্থিত কোয়ারসেটিন এবং কেলিন শ্বাসকষ্ট কম করতে সাহায্য করে। এটি অবরুদ্ধ বায়ু প্যাসেজ খুলতে সাহায্য করে। আমলা, ভিটামিন C সমৃদ্ধ, পরিবেশগত বিষাক্ত পদার্থের কারণে ফুসফুসের টিস্যুর ক্ষতি রোধ করতে সাহায্য করে।

আনারসের জুস যেমন স্বাদে খুবই সুস্বাদু তেমনি স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। আসলে, আনারসে রয়েছে ব্রোমেলিন এনজাইম, যা ফুসফুসে জমে থাকা সমস্ত বিষাক্ত ধ্বংসাবশেষ পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। এইভাবে, এটি প্রাকৃতিক উপায়ে ফুসফুসকে ডিটক্স করতে সাহায্য করে এটি জুস। জানেন হয়তো পেপারমিন্টে অ্যান্টিহিস্টামিন থাকে, যা নাক, শ্লেষ্মা এবং হাঁচির মতো উপসর্গগুলির প্রতিষেধক হিসাবে কাজ করে। ডায়েটিশিয়ানের এই পানীয়গুলি যে আপনাকে কেবল বায়ু দূষণ এড়াতে সাহায্য করবে না, আপনাকে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এবং ফুসফুসের ভালো স্বাস্থ্যের জন্য একটি পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে।

পটাসিয়ামের মাত্রা খুব কম হয়ে গেলে শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। এমন পরিস্থিতিতে, কলা এবং নারকেল জল উভয়ই আপনাকে সাহায্য করতে পারে, কারণ এই সবকটি উপাদান পটাশিয়াম সমৃদ্ধ। অন্যদিকে, আদা শ্বাসনালী থেকে বায়ু দূষণকারী উপাদানগুলিকে অকালে বের করে দিতে সাহায্য করে যা ফুসফুসের জ্বালা সৃষ্টি করে। তাই, কলার স্মুদি তৈরি করতে আপনার প্রয়োজন হবে কলা, আদা এবং নারকেলের জল। একটি পাত্রে এই তিনটি একসঙ্গে মিশিয়ে পান করুন যথেষ্ট উপকার পাবেন।