করোনা সংক্রমণের জেরে দেশের বিভিন্ন শহরে জারি নাইট কার্ফু বা লকডাউন! কোথায়, কোথায়? জেনে নিন

করোনা সংক্রমণের জেরে দেশের বিভিন্ন শহরে জারি নাইট কার্ফু বা লকডাউন! কোথায়, কোথায়? জেনে নিন
করোনা সংক্রমণের জেরে দেশের বিভিন্ন শহরে জারি নাইট কার্ফু বা লকডাউন! কোথায়, কোথায়? জেনে নিন

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশব্যাপী ঝড়ের গতিতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাজেহাল অবস্থা গোটা দেশের। এই পরিস্থিতিতে সরকার বেশ কয়েকটি রাজ্যের বিভিন্ন শহরে লকডাউনের নিয়ম শুরু করেছে। তারপর সেখান থেকে কিছু কিছু এলাকায় বা গোটা জেলাজুড়ে লকডাউনেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও জারি করা হয়েছে নাইট কার্ফুর নির্দেশিকা।

এদিকে বৃহস্পতিবারই দেশের করোনা সংক্রমণ দ্রুত গতিতে বাড়তে থাকার কারণে রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কোন রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি ঠিক কী রকম, তার উপর নির্ভর করেই ব্যবস্থা নেবে সেই রাজ্য। এবারর একনজরে দেখে নেওয়া যাক, দেশের মধ্যে কোন কোন রাজ্যের কোন কোন শহরে নাইট কার্ফু ও লকডাউন জারি করা হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় পর্যায়েও সবথেকে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রের। মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি পঞ্জাবের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ। মহারাষ্ট্রের সমস্ত জেলায় নাইট কার্ফু চলছে। রাত ৮ টা থেকে সকাল ৭ টা পর্যন্ত কার্ফুর নিয়ম রয়েছে। পঞ্জাবেও একইভাবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নাইট কার্ফু জারি করা হয়েছে। সেখানে রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত নাইট কার্ফু চলছে।

অন্যদিকে গুজরাটে লকডাউন বা নাইট কার্ফু আরোপ করতে বলা হয়েছে। ৩০ এপ্রিলের মধ্যে রাজ্যের ২০ টি বড় শহরে নাইট কার্ফুর ঘোষণা করা হয়েছিল। এই রাজ্যের চারটি শহর- আহমেদাবাদ, সুরত, ভোদোদার, রাজকোটে ইতিমধ্যেই নাইট কার্ফু শুরু হয়ে গেছে। এ ছাড়া জামনগর, ভাওয়ানগর, জুনাগড়, গান্ধিনগর, আনন্দ, নদিয়াদ, মেহরানা, মোরবি, দহোদ, পাটান, গোধরা, ভুজ, গান্ধিধাম, ভুরুচ, সুরেন্দ্রনগর ও আমরেলিও এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে৷

আবার রাজস্থানের জয়পুর, আজমির, ভিলওয়ারা, যোধপুর, কোটা, উদয়পুর, সাগওয়ারা, কুশলগড়ে রাত ৮ টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত নাইট কার্ফু জারি করা হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশের রতলাম, বেতুল, কাটনি, খারগোন এবং ছিন্দোয়ারাতে ৭-৯ দিনের সম্পূর্ণ লকডাউন হয়েছে। এ ছাড়া রাজধানী ভোপালের কলার এলাকায় ৯ দিনের লকডাউন হয়েছে। এই লকডাউন শুক্রবার সন্ধে থেকে কার্যকর হবে বলে জানা গিয়েছে। শুক্রবার সন্ধে ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজ্যের অন্যান্য শহরাঞ্চলে লকডাউন থাকবে বলে জানা গিয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদ, নোয়াডা, বেরিলিতে নাইট কার্ফু শুরু হয়েছে। এর আগে প্রয়াগরাজ, বারাণসী এবং লখনউতে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

জম্মু ও কাশ্মীরের ৮ টি জেলায় বৃহস্পতিবার থেকে নাইট কার্ফু শুরু হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে জম্মু, উধমপুর, কাঠুয়া, শ্রীনগর, বাহামুলা, বাডগাম, অনন্তনাগ এবং কুপওয়ারায। এইসব জেলায় ফের একবার করোনা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

এছাড়াও অন্যান্য রাজ্য যেমন- কর্ণাটক, বেঙ্গালুরু, মহীশুর, মঙ্গলুরু, কালবুর্গী, বিদার, তুমাকুরু, উদুপি, মণিপালে রাত ১০ টা থেকে সকাল ৫ টা পর্যন্ত লকডাউন শুরু হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ পাওয়া পর্যন্ত এই করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ জারি থাকবে। একই সঙ্গে, পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত ওড়িশার সুন্দরগড়, বরগড়, সম্বলপুর, বালানগীর, নওপদ, কালাহান্ডি, মালকানগিরি, কোরাপুট, নবরঙ্গপুর, ঝারসুগুদাতেও নাইট কার্ফু থাকবে।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.