মানসিক অবসাদের জেরে সরস্বতী পুজোর দিনই আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন কলেজ ছাত্রী

মানসিক অবসাদের জেরে সরস্বতী পুজোর দিনই আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন কলেজ ছাত্রী
মানসিক অবসাদের জেরে সরস্বতী পুজোর দিনই আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন কলেজ ছাত্রী / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ নদিয়াঃ মলয় দেঃ প্রেমঘটিত বিষয়ে মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী হল কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্রী। ঘটনাটি শান্তিপুর ব্লকের নবলা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত তেজপুর এলাকায় ঘটেছে। পরিবার সূত্রে জানা যায় বাবা বিনয় সিকদার। পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি খুবই কম রোজগারে সংসার চালাতেন। মেয়েকে পড়াশোনা করার জন্য সহযোগিতাও করতেন।

প্রসঙ্গত অন্যান্য দিনের মতোই মেয়ে তনুশ্রী সিকদার সোমবার রাত্রি সাড়ে আটটার মধ্যে রাতের খাওয়া দাওয়া করে তার নিজের ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। কিন্তু মঙ্গলবার ভোররাতে বাবা বাইরে বেরিয়ে কোন কারণে মেয়ের ঘরের জানালার দিকে তাকিয়ে দেখে মেয়ে তনুশ্রী শিকদার ঘরের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে।

এবিষয়ে বাবা বিনয় সিকদার জানান, বেশ কয়েকদিন যাবৎ একটি ছেলে বিভিন্ন ফোন নাম্বার থেকে মেয়েকে ফোন করে, কি কথাবার্তা হয় বাবা নিজেই তা জানতেন না। বাবা বিনয় সিকদার এও জানান, পরিবারে তার দুই ছেলে আর একমাত্র কন্যা সন্তান কারোর সাথে কোনরকম অশান্তি ছিল না। তার সন্দেহ প্রেমঘটিত কোন বিষয় নিয়েই হয়তো ওনার মেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। তিনি আরোও জানান, মেয়ে আত্মঘাতী হওয়ার পরেও বেশ কয়েকটি ফোন নাম্বার থেকে ছেলেটি ফোন করে কিন্তু কিছু জানতে চাইলে কিছু না বলেই ফোনটা কেটে দেয়।

বাবা বিনয় সিকদারের অভিযোগ, যেই ফোন করুক না কেন তার সাথে কোন রকম সম্পর্ক ছিল মেয়ে তনুশ্রীর। না হলে পরিবারের কারোর সাথে কোন রকম ঝগড়া-ঝাটি ছিলনা মেয়ে তনুশ্রীর তাহলে কেন সে এই আত্মঘাতী রাস্তা বেছে নিলো। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাস্থলে শান্তিপুর থানার পুলিশ গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্তের জন্য রানাঘাট মহাকুমা হাসপাতালে পাঠাই।

আরো পড়ুনঃ   স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায়, শ্বাসরোধ করে গৃহবধূকে খুন! অভিযোগ স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে