বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২

অনুপ্রবেশকারীদের উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম! পুলিশের গুলিতে মৃত ২, আহত বহু পুলিশ

০৮:০১ পিএম, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

অনুপ্রবেশকারীদের উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম! পুলিশের গুলিতে মৃত ২, আহত বহু পুলিশ

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল আসাম। অনুপ্রবেশকারীদের উচ্ছেদ করা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে ভয়াবহ সংঘর্ষের জেরে রণক্ষেত্র আসামের দরং জেলা। জানা গিয়েছে, দরং জেলার ঢলপুরের গরুখুঁটিতে উচ্ছেদ অভিযানের গিয়ে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ বাঁধে। অনুপ্রবেশকারীদের হঠাতে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পুলিশ। তখনই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় দু'জনের। ঘটনায় একাধিক পুলিশ কর্মীও আহত হয়েছেন বলে খবর মিলেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, দরং জেলার ঢলপুরের গরুখুঁটি এলাকাতে বেআইনি জমায়েত হচ্ছিল। এদের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশ থেকে অবৈধ ভাবে প্রবেশ করেছে বলে অভিযোগ এসেছে। এই খবর পাওয়ার পরেই এই উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। পুলিশের তরফে অভিযোগ, উচ্ছেদ অভিযানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রথমে শূন্যে গুলি চালায় পুলিশ। উল্টো দিক থেকে পাল্টা পাথর ছুঁড়তে শুরু করেন বিক্ষোভকারীরা। সেই পাথরের আঘাতে মহিলা সহ মোট ৯ জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে, পুলিশে গুলিতে দুই বিক্ষোভকারী গুলিবিদ্ধ হয়৷ তবে মৃতরা বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকারী কিনা তা এখনও জানা যায়নি।

অন্যদিকে, খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান অসম পুলিশের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা ও প্রশাসনিক আধিকারিকরা। মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা আগেই জানিয়েছেন, চর অঞ্চলগুলিকে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের হাত থেকে মুক্ত করার এই অভিযান চলবে। ঘটনার পর তিনি জানিয়েছেন, অনুপ্রবেশকারীরা আচমকাই পুলিশের উপরে হামলা চালায়। বিভিন্ন ছোটখাটো অস্ত্র ও ইটবৃষ্টির মাধ্যমে আঘাত করা হয়। কার্যত প্রাণে বাঁচতেই পুলিশ পালটা গুলি চালিয়েছে।

জানা গিয়েছে, ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে ঘটনাস্থলে। এলাকাতে বসানো হয়েছে পুলিশ পিকেটিং। সংঘর্ষের ঘটনার পর বন্ধ হয়ে গিয়েছে উচ্ছেদ অভিযান। তবে আগামীকাল, শুক্রবার, ফের অভিযান শুরু হবে। অসম পুলিশের তরফে আরও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে খবর।

উল্লেখ্য, আসামের ব্রহ্মপুত্রের চর অঞ্চলে মূলত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষদের বসবাস। অভিযোগ উঠেছে, এই অঞ্চলের কৃষিজীবী মানুষদের অনেককেই বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে দাগিয়ে দেন। স্থানীয়দের অভিযোগ, আসাম রাজ্যের বাসিন্দাদেরও অনেক সময় অনুপ্রবেশকারী হিসেবে পুলিশের জুলুম সহ্য করতে হয়৷ তবে এ কথাও ঠিক যে, বাংলাদেশ থেকে প্রায়ই অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা সেখানে প্রবেশ করে। তাদের উচ্ছেদ করতেই পুলিশি অভিযান জারি থাকছে বলেই জানা যাচ্ছে৷