ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, বাতিল পূর্ব রেলের ২৫ টি ট্রেন! রইল তালিকা

ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, বাতিল পূর্ব রেলের ২৫ টি ট্রেন! রইল তালিকা
ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, বাতিল পূর্ব রেলের ২৫ টি ট্রেন! রইল তালিকা / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’। সোমবার, অর্থাৎ আজ সকাল থেকেই আকাশের মুখভার, বৃষ্টি এখনও শুরু হয়নি। প্রথমদিকে সকালে খানিক রোদের দেখা মিললেও, এখন আর রোদ নেই, আকাশ মেঘলা।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এই ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’-এর প্রভাবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, গত বছর ২০ মে বাংলার উপর আছড়ে পড়েছিল শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আমফান। তছনছ করে দিয়েছিল দক্ষিণবঙ্গকে। আর এবার ধেয়ে আসছে যশ। মনে করা হচ্ছে, এই ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৬৫ কিমি, এবারও প্রবল ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। এর সঙ্গে ভারি বৃষ্টিপাতও হওয়ার কথা। উপকূলবর্তী এলাকায় ক্ষতির সম্ভবনা বেশি। এই পরিস্থিতিতে আরও ২৫ টি ট্রেন বাতিল করল পূর্ব রেল। রবিবারই এ প্রসঙ্গে বিবৃতি প্রকাশ করে জানিয়েছে রেল। পাশাপাশি প্রকাশ করা হয়েছে বাতিল করা ট্রেনের তালিকাও।

এবার এক নজরে দেখে নেওয়া যাক, সেই বাতিলের তালিকায় কোন কোন ট্রেন রয়েছে। ০২৫১০ গুয়াহাটি-বেঙ্গালুরু ক্যান্টনমেন্ট, ০২৬৪৩ এর্নাকুলম-পাটনা জংশন পরপর দুদিন অর্থাৎ আজ এবং মঙ্গলবারের জন্য বাতিল করা হয়েছে। ০৫২২৮ মুজফ্ফরপুর-যশবন্তপুর এবং ০৫৯৩০ নিউ তিনসুকিয়া-তামবরম, ০৬৫৭৮ গুয়াহাটি-যশবন্তপুর স্পেশ্যাল ট্রেন সোমবার বাতিল।

আবার মঙ্গলবার, অর্থাৎ আগামীকাল ০২৫০৭ ত্রিবান্দ্রম সেন্ট্রাল-শিলচর স্পেশ্যাল, ০৮৪৫০ পাটনা জংশন-পুরী, ০২৫১৫ বেঙ্গালুরু ক্যান্টনমেন্ট-আগরতলা স্পেশ্যাল, ০২৫১৬ আগরতলা-বেঙ্গালুরু ক্যান্টনমেন্ট স্পেশ্যালও বন্ধ থাকবে। ০২২৫৪ ভাগলপুর-যশবন্তপুর, ০২৩৭৬ সিজি তামবরম, ০২৫৫২ কামাখ্যা-যশবন্তপুর, ০২৬১১ এমজিআর চেন্নাই সেন্ট্রাল-নিউ জলপাইগুড়ি স্পেশ্যাল ট্রেনের পরিষেবাও বুধবার মিলবে না। পাশাপাশি আগামী ২৮ এবং ২৯ তারিখেও একাধিক ট্রেন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এমনিতেই করোনার কারণে সাধারণ যাত্রীবাহী ট্রেন বন্ধ রয়েছে। যদিও চলছে দূরপাল্লার ট্রেন। এদিকে ঘূর্ণিঝড় আসার খবরে, নতুন করে ভাবতেই হচ্ছে রেলকে। শুক্রবার পূর্ব রেলের জিএম মনোজ যোশী বিভাগীয় কর্তা ও ডিআরএমদের সঙ্গে এনিয়ে জরুরি বৈঠক করে এ বিষয়ে একাধিক নির্দেশ দেন। তবে, রেল হাসপাতালগুলিকে ঝড়ের তাণ্ডব থেকে সুরক্ষিত রাখতে নানা জরুরি ব্যবস্থা তৈরি রাখার পাশাপাশি অ্যাক্সিডেন্ট রিলিফ ট্রেন ও কর্মীদের তৈরি থাকতে বলা হয়েছে। জলের পাম্প থেকে বিকল্প বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, ওষুধের জোগান রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া ইতিমধ্যেই হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে বিশেষ বন্দোবস্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও রেলের ফাঁকা বগি চেন দিয়ে বেঁধে রাখার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।