কোন রঙের ডিমের কুসুম বেশি উপকারী! জেনে নিন

কোন রঙের ডিমের কুসুম বেশি উপকারী! জেনে নিন
কোন রঙের ডিমের কুসুম বেশি উপকারী! জেনে নিন

ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচার এর গবেষকদের বক্তব্য, একটি ৫০ গ্রাম ওজনের ডিমে ৭২ ক্যালোরি ও ৪.৭৫ গ্রাম ফ্যাট। সাদা ও লাল ডিমই হোক এই পুষ্টিগুণের পরিমাণ তাতে থাকে। সুতরাং, লাল হোক বা সাদা, দু’ধরনের ডিমের খাদ্যগুণ বা পুষ্টিগুণ প্রায় সমান, এমনটাই জানাচ্ছেন পুষ্টিবিদরা।

ডিমের খোলার রং অনুযায়ী তার খাদ্যগুণ বা পুষ্টিগুণ সম্পর্কে তো জানা গেল। কিন্তু এটা নিশ্চয়ই খেয়াল করেছেন যে, ডিমের কুসুমের রংও দু’রকমের হয়, এক হয় হলুদ আর একটি হয় কমলা রঙের । এখানে কোন রঙের কুসুমের ডিম বেশি স্বাস্থ্যকর তা জানেন কি? ইউএসডিএ-র গবেষকদের মতানুযায়ী কুসুমের রং আসলে নির্ভর করে মুরগি কি খাবার খায় তার ওপর।

এছাড়া ডিমের কুসুমের রং কমলা হয় ক্যারোটিনয়েড নামের এক রকম রাসায়নিকের অধিক পরিমাণে থাকার কারণে। কোনো মুরগি খোলা জায়গায় যত বেশি ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ পাবে, তার ডিম ততই গাঢ় রঙ বা কমলা রঙের হবে। আবার বেশ কিছু ক্ষেত্রে ক্যারোটিনয়েড সমৃদ্ধ খাবারও দেওয়া হয় মুরগিকে। যার প্রভাবেই ওই সব মুরগির ডিমের কুসুমের রং অনেক সময় কমলা হয়ে যায়।

পরীক্ষা করে দেখা গেছে খামারে চাষ করা যে কোনও মুরগির চেয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে পুষ্টিকর খাবার খুঁজে খাওয়া মুরগির ডিমে ভিটামিন ই, ভিটামিন এ আর ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের পরিমাণ অনেক বেশি উৎপন্ন হয়। যার ফলে এদের রং গাঢ় হয়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.