শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

রাজ্যে পিছিয়ে গেল ৪ পুরসভার নির্বাচন! ভোটের নয়া দিন ঘোষণা করল কমিশন

০৪:০৬ পিএম, জানুয়ারি ১৫, ২০২২

রাজ্যে পিছিয়ে গেল ৪ পুরসভার নির্বাচন! ভোটের নয়া দিন ঘোষণা করল কমিশন

অবশেষে ৩ সপ্তাহ পিছিয়ে গেল রাজ্যের ৪ পুরসভার নির্বাচন। এর আগে ২২ জানুয়ারি বিধাননগর, শিলিগুড়ি, চন্দননগর এবং আসানসোল কর্পোরেশনে ভোট ঘোষণা করেছিল নির্বাচন কমিশন। ২৫ জানুয়ারি ছিল ফল ঘোষণা। তবে এবার সেই দিনক্ষণ পিছিয়ে গেল। ১২ ফেব্রুয়ারি ভোটের নয়া দিন ঘোষণা করে বিজ্ঞপ্তি জারি করল কমিশন৷

নির্বাচনের আগে অবশ্য একাধিক শর্ত দিয়েছে কমিশন। কমিশন সূত্রে জানানো হয়েছে, নতুন করে মনোনয়ন জমা নেওয়া হবে না। এতদিন যে আদর্শ আচরণবিধি ও কোভিডবিধি ছিল, তা সবই জারি থাকবে। ভোটের দিন পিছোনোয় কেবলমাত্র প্রচারের জন্য একটু বেশি সময় পেয়ে গেলেন প্রার্থীরা। এই ৪ পুরসভা ছাড়া বাকি পুরসভাগুলোর ভোট হবে ২৭ ফেব্রুয়ারি। কমিশনের তরফে আপাতত এই সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, কমিশনের এই ভোট পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ঘাসফুল শিবির৷ তৃনমূল সাংসদ সৌগত রায় জানিয়েছেন, "ভোট পিছিয়ে ভালোই হয়েছে। আমাদের আশা শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট হবে। বিরোধীরা কী বলছে তাতে কিছু আসে যায় না। ওরা দাঁড়ালেও ভোট পাবে না।" অন্যদিকে, রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের কথায়, "আমরা অনেক আগেই দাবি করেছিলাম ভোট পিছোনোর।"

একই সুর শোনা গেল সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর কথাতেও৷ তাঁর দাবি, "যেদিন ভোটের দিন ঘোষণা হল সেদিনই আমরা ভুল বলেছিলাম। ২৩ জানুয়ারি নেতাজির জন্মদিন এরপর ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস। কীভাবে ২২ জানুয়ারি ভোট হবে?" তবে কমিশন যে রাজ্য সরকারের কথা মতোই চলছে এমন দাবিও করেন তিনি। এদিকে, জানুয়ারির ভোট পিছিয়ে ফেব্রুয়ারিতে করা হলেও করোনার সংক্রমণ আদৌ রোখা সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য আশঙ্কা দেখিয়েছেন।