বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি, ইলন মাস্ক, ২০৫০ সালের মধ্যে মঙ্গলে একটি পরিপূর্ণ শহর স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছেন!

বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি, ইলন মাস্ক, ২০৫০ সালের মধ্যে মঙ্গলে একটি পরিপূর্ণ শহর স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছেন!
বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি, ইলন মাস্ক, ২০৫০ সালের মধ্যে মঙ্গলে একটি পরিপূর্ণ শহর স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছেন!

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ একসময় উপার্জনের তাগিদে পিএইচডি করতে পারেননি। সেই তিনিই আজ বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি। পিছনে ফেলে দিয়েছেন জেফ বেজোস, বিল গেটসকে। উঠে এসেছেন বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে শীর্ষে।

নাম ইলন মাস্ক, ‘স্পেস-এক্স’ এবং ‘টেসলা’র প্রধান। ১৯৭১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেটোরিয়াতে ইলন মাস্ক জন্মগ্রহণ করেন। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের পর হাইস্কুল শেষে মা আর ভাই-বোনকে নিয়ে কানাডায় চলে যান মাস্ক। সেখানে অন্টারিওর এক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। পরে যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যা আর অর্থনীতিতে মাস্টার্স করেন। ইলন মাস্কের মোট সম্পদের আর্থিক মূল্য ১৯১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ব্লুমবার্গ সূচক অনুযায়ী, বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি এই ইলন। গত তিন বছর ধরে ধনী ব্যক্তির তালিকায় শীর্ষ ছিলেন অ্যামাজনের প্রধান জেফ বেজোস। তাঁকে পিছনে ফেলে আজ শীর্ষে স্থান করে নিয়েছেন ইলন।

বিশ্বের সবথেকে ধনী ব্যক্তি এই ইলন মাস্ক ২০৫০ সালের মধ্যে মঙ্গলগ্রহে একটি পরিপূর্ণ শহর স্থাপনের পরিকল্পনা করেছেন। ‘স্পেস-এক্স’ এর প্রতিষ্ঠাতা জানিয়েছেন যে, ২০৫০ সালের মধ্যে ১০ মিলিয়ন মানুষকে তিনি মঙ্গলগ্রহে পাঠানোর পরিকল্পনা করেছেন।

এই পরিকল্পনার জন্য ইতিমধ্যেই তিনি তাঁর বেশিরভাগ সম্পত্তি বিক্রি করতে শুরু করেছেন। তাঁর রিয়েল এস্টেট- এর বেশ কয়েকটি বাড়ি বিক্রি করে দিয়েছেন। যার মূল্য একসময় ১০০ মিলিয়ন ডলারের বেশি ছিল। গত মে মাসেই তিনি ঘোষণা করেছিলেন যে, তিনি তাঁর অর্ধেক সম্পত্তি বিক্রি করার পরিকল্পনা নিয়েছেন। তাঁর নেওয়া পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়নের জন্য তিনি যথাসম্ভব অর্থ ব্যয় করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন।

ইলন মাস্ক জানিয়েছেন যে, মঙ্গল গ্রহে যেতে ইচ্ছুক কোনও ব্যক্তির যদি অর্থ না থাকে এই ভ্রমণের জন্য, তাহলে তাঁদের জন্য লোন নেওয়ার ব্যবস্থাও থাকবে। পাশাপাশি তিনি এও জানিয়েছেন যে, লালগ্রহের বাসিন্দাদের জন্য চাকরির ব্যবস্থাও থাকবে মঙ্গলে, তেমনটাই জানিয়েছেন ইলন মাস্ক।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.