বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই, ২০২২

অষ্টম শ্রেণী পাশেই ‍‍`অগ্নিপথ‍‍` প্রকল্পে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ! জানুন বিস্তারিত খুঁটিনাটি

মৌসুমী মোদক

প্রকাশিত: জুন ২০, ২০২২, ০৭:৩২ পিএম | আপডেট: জুন ২০, ২০২২, ০৭:৪৫ পিএম

অষ্টম শ্রেণী পাশেই ‍‍`অগ্নিপথ‍‍` প্রকল্পে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ! জানুন বিস্তারিত খুঁটিনাটি
অষ্টম শ্রেণী পাশেই ‍‍`অগ্নিপথ‍‍` প্রকল্পে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ! জানুন বিস্তারিত খুঁটিনাটি / প্রতীকী ছবি

কেন্দ্রের ‍‍`অগ্নিপথ‍‍` প্রকল্প নিয়ে ইতিমধ্যেই উত্তাল গোটা দেশ। এসবের মাঝেই এবার অগ্নিবীরে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল ভারতীয় সেনাবাহিনী। গতকাল ‍‍`অগ্নিপথ‍‍` প্রকল্প নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের সেনাবিভাগের শীর্ষকর্তা লেফটেন্যান্ট জেনারেল অনিল পুরী। তিনিই স্পষ্ট করে দেন যে, এই প্রকল্পে নিয়োগ হবেই। সেই অনুযায়ীই এবার জারি হল বিজ্ঞপ্তি৷

সেনাবাহিনীর বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, অগ্নিবীর প্রকল্পে আগামী ৪ বছরের জন্য নিয়োগ করা হবে। তবে এই প্রকল্পে কোনও ধরনের পেনশন মিলবে না। সেনাদের জন্য যে ক্যান্টিনের সুবিধা তাও মিলবে না। চার বছরের মেয়াদ শেষে প্রতিটি ব্যাচ থেকে ২৫ শতাংশ যুবককে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করা হবে। এই ২৫ শতাংশ অগ্নিবীররা আরও ২৫ বছর ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি করতে পারবেন।

অগ্নিবীরে নিয়োগের শিক্ষাগত যোগ্যতা 
এই প্রকল্পে অষ্টম এবং দশম শ্রেণী উত্তীর্ণ যুবকরাও আবেদন করতে পারবেন।

অগ্নিবীরের বেতন 
প্রথম বছর প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় বছর প্রতি মাসে ৩৩ হাজার টাকা, তৃতীয় বছর প্রতি মাসে ৩৬,৫০০ টাকা ও চতুর্থ বছর প্রতি মাসে ৪০ হাজার টাকা করে পাওয়া যাবে৷ 
জানা গিয়েছে, উল্লেখিত প্যাকেজের মধ্যে প্রতি মাসের বেতনের ৩০ শতাংশ টাকা আলাদাভাবে জমা করা হবে। সরকারের তরফেও এই পরিমাণ টাকা জমা দেওয়া হবে। ৪ বছরের পরিষেবা শেষে, পরিষেবা তহবিল হিসাবে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা (সুদ সহ) পাবেন প্রতিটি অগ্নিবীর। সেবা তহবিলের উপর কোনও আয়কর আরোপ করা হবে না।

অগ্নিবীরের ভাতা
অগ্নিবীররা কোনও প্রকার ভাতা পাবেন না। মহার্ঘ্য ভাতা, সামরিক চাকরির বেতন ভাতা ইত্যাদি কিছুই পাবেন না। কিন্তু যতদিন কেউ চাকরিতে থাকবেন, ততদিন ৪৮ লক্ষ টাকার বীমা কভার পাবেন তিনি।

অগ্নিবীরের ছুটির তালিকা
অগ্নিবীররা বছরে মোট ৩০টি ছুটি পাবেন। তবে অসুস্থ হলে কত দিনের ছুটি মিলবে, সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয়নি।

অগ্নিপথ প্রকল্পে রেজিস্ট্রেশনের তারিখ
অগ্নিপথ প্রকল্পে রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে আগামী মাস অর্থাৎ জুলাই থেকে।