Fact Check: ৩ মে থেকে লকডাউনের পরিকল্পনা করছেন মোদি সরকার? জেনে নিন এর আসল সত্যতা

Fact Check: ৩ মে থেকে লকডাউনের পরিকল্পনা করছেন মোদি সরকার? জেনে নিন এর আসল সত্যতা / Image Source: http://twitter.com/mannkibaat
Fact Check: ৩ মে থেকে লকডাউনের পরিকল্পনা করছেন মোদি সরকার? জেনে নিন এর আসল সত্যতা / Image Source: http://twitter.com/mannkibaat

দেশে দিন দিন বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। আক্রান্ত হচ্ছেন কাতারে কাতারে মানুষ। পরিস্থিতি সামলাতে নাজেহাল দশা স্বাস্থ্যকর্মীদের। এই অবস্থায় দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ইতিমধ্যেই ডাকা হয়েছে নাইট কার্ফু। কোথাও আবার আংশিক বা পুরো লকডাউন। এসবের মধ্যেই জোরালো হয়ে উঠেছিল আরও একটি গুজব, ৩ থেকে ২০ মে পর্যন্ত নাকি দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই মর্মে একটি চ্যানেলের স্ক্রিনশটও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা ইতিমধ্যেই বেশ ভাইরালও হয়ে উঠেছে।

ভাইরাল হয়ে ওঠা সেই খবরে দাবী করা হয়েছে, করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে সংক্রমণ। আর তা রুখতেই আগামী সোমবার, ৩ মে থেকে দেশজুড়ে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু আদৌ কি এ খবর সত্যি? নাকি পুরোটাই গুজব? জানা গিয়েছে, দেশজুড়ে লকডাউনের এই খবর সম্পূর্ণই ভিত্তিহীন। প্রধানমন্ত্রী আদতে এরকম কোনও ঘোষণাই করেননি। বরং প্রধানমন্ত্রীর দাবী, লকডাউন কোনও সমাধান নয়। বরং অন্তিম বিকল্প।

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগেই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে করা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী জানান, গতবছর দেশে ছিল না করোনার ভ্যাকসিন। চিকিৎসার সঠিক পরিকাঠামোও ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে লকডাউন ঘোষণা করতে হয়েছিল৷ তবে এ বছর তা হবে না। লকডাউন করে সমস্যার সমাধান হবে না। বরং ছোট ছোট কনটেন্টমেন্ট জোন করা যেতে পারে। লকডাউন একেবারে শেষ বিকল্প।

প্রসঙ্গত, এই প্রথম নয়। এর আগেও প্রধানমন্ত্রীর ভুয়ো ছবি দিয়ে লকডাউনের ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তখন বলা হয়েছিল, ১৫ থেকে ৩০ এপ্রিল লকডাউন জারি করা হবে। কিন্তু পরে সে খবরকে ভিত্তিহীন বলে দেয় প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো। এই মর্মে ট্যুইটও করে ব্যুরো। এবার ফের ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়েছিল নেটদুনিয়া জুড়ে। তবে এখন আসল সত্যটা বেশ স্পষ্ট।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.