মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই, ২০২২

Fact Check: পুণ্যার্থীদের খাদ্য বিতরণের পুরনো ছবিই নাকি ইউক্রেনে ইসকনের জনসেবা বলে ভাইরাল! জানুন এর সত্যতা

মৌসুমী মোদক

প্রকাশিত: মার্চ ২, ২০২২, ০১:২২ এএম | আপডেট: মার্চ ২, ২০২২, ০১:২৫ এএম

Fact Check: পুণ্যার্থীদের খাদ্য বিতরণের পুরনো ছবিই নাকি ইউক্রেনে ইসকনের জনসেবা বলে ভাইরাল! জানুন এর সত্যতা
Fact Check: পুণ্যার্থীদের খাদ্য বিতরণের পুরনো ছবিই নাকি ইউক্রেনে ইসকনের জনসেবা বলে ভাইরাল! জানুন এর সত্যতা

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ছবি। সেখানে দেখা যাচ্ছে পুণ্যার্থীদের খাদ্য বিতরণ করছেন শাড়ি ও পাঞ্জাবী পরিহিত কিছু মহিলা ও পুরুষ৷ এই ছবিটি শেয়ার করেই দাবী করা হচ্ছে, তা যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে ইসকনের (ISKCON) জনগণের প্রতি সেবা। ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ইসকন কলকাতার মুখপাত্র ও সহ-সভাপতি রাধারমণ দাস ট্যুইট করে জানান যে, ইউক্রেনস্থিত ইসকন জনগণের সেবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এরপরই ২৭ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে ভাইরাল হয় ওই ছবিটি।

ছবিটি ফেসবুকে শেয়ার করেন গৌরাঙ্গ পাল নামক এক ব্যক্তি। সেখানে লেখা, ‍‍`যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে ISKCON খাবার পরিবেশন করছে ইউক্রেন বাসীকে। সনাতনীরা এই ভাবে মানুষের সেবা করে জাত, ধর্ম না দেখে। ISKCON এর ৫৪ টা মন্দিরের দরজা খুলে দেওয়া হয়েছে সাধারণ ইউক্রেন বাসীর সেবার জন্য। জয় সনাতন ধর্মাবলম্বী।‍‍` একই ছবি ফেসবুক ও ট্যুইটারে শেয়ার করেন মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল ও বিজেপি নেতা তথাগত রায়ও।

 

কিন্তু আদৌ কি তা সঠিক? বংনিউজ২৪x৭-এর তরফে যাচাই করে দেখা হয়েছে যে, ভাইরাল ছবিটি মোটেই ইউক্রেনে খাবার পরিবেশনের ছবি নয়। সেটি আসলে আমেরিকার ফ্লোরিডায় আলাছুয়া হরেকৃষ্ণ মন্দিরের ওয়েবসাইটে ইতিমধ্যেই আপলোড করা হয়েছে। ২০১৫ সালে ওই মন্দিরের ওয়েবসাইটে ছবিটি আপলোড করা হয়েছিল।

সত্য যাচাই:
বংনিউজ২৪x৭ ছবিটি সার্চ করে দেখে যে সেটি আসলে ফ্লোরিডার আলাছুয়া হরেকৃষ্ণ মন্দিরের ওয়েবসাইটে ছবিটি রয়েছে। ওয়েবসাইটের ‍‍`ইউআরএল‍‍` থেকে জানা গিয়েছে সেটি আপলোড করা হয়েছে ২০১৫ সালে। ওই একই ছবি বিভিন্ন জায়গার ইসকন মন্দিরের ওয়েবসাইটেও ব্যবহার করা হয়েছে। এরপরই নিশ্চিত হওয়া যায় যে, সেটি আসলে কোনও ভাবেই ইউক্রেনের ছবি নয়। তবে ছবিটির আসল উৎস কী, তা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।
লিংকে ক্লিক করে দেখে নিন ওয়েবসাইটের ছবিটি-
 

 

https://www.alachuatemple.com/food/