নয়া কৃষি আইন বাধ্যতামূলক নয়, লোকসভায় দাঁড়িয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

নয়া কৃষি আইন বাধ্যতামূলক নয়, লোকসভায় দাঁড়িয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
নয়া কৃষি আইন বাধ্যতামূলক নয়, লোকসভায় দাঁড়িয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী / Screenshot from Facebook Video Post By @narendramodi

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ সংসদে দাঁড়িয়ে নয়া কৃষি আইন নিয়ে অন্য সুরে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর কথায়, নয়া কৃষি আইন বাধ্যতামূলক নয়। তিনি বলেন, নয়া কৃষি আইন কোনওভাবেই বর্তমান মাণ্ডি ব্যবস্থাকে নস্যাৎ করবে না। এই আইন কোনভাবেই কারও ওপর জোর করে চাপিয়েও দেওয়া হচ্ছে না। কৃষকরা ইচ্ছে হলে, এই আইন মানতেও পারেন, নাও মানতে পারেন। কৃষকরা যেখানে চাইবেন নিজেদের ফসল সেখানে বিক্রি করতে পারেন বলেও তিনি জানান। অন্যদিকে নতুন কৃষি আইনে কোনও সমস্যা বা খামতি থাকলে, তাও পরিবর্তন করার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

বুধবার লোকসভায় রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণের উপর বিতর্কে নিজের জবাবি ভাষণ দিতে গিয়ে, কৃষকদের আন্দোলন প্রসঙ্গে মুখ খোলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এই নয়া কৃষি আইনের মাধ্যমে দেশের কৃষকদের সামনে শুধুমাত্র একটি বিকল্প ব্যবস্থা তুলে ধরা হয়েছিল। এই ব্যবস্থা ঐচ্ছিক, বাধ্যতামূলক নয়। তিনি আরও বলেন যে, নতুন ব্যবস্থার থেকে দেশের কৃষকরা যদি পুরনো ব্যবস্থায় বেশি মুনাফা পান, তাহলে তাঁরা সেই পুরনো ব্যবস্থাই ব্যবহার করতে পারেন। কৃষকদের যেখানে ইচ্ছে তাঁদের ফসল বিক্রির সুবিধা এবং স্বাধীনতা রয়েছে।

এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের উদ্দেশ্যে তাঁর প্রশ্ন, এই নতুন ব্যবস্থায় তাঁদের কাছ থেকে কিছু কেড়ে নেওয়া হয়েছে কিনা?

কেন্দ্রের আনা ৩ টি কৃষি আইনের বিরোধিতায় দিল্লি-হরিয়ানা সীমানায় দেশের বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকদের আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। বিরোধীরাও এই নয়া কৃষি আইনের তীব্র বিরোধিতা করেছেন। তবে, নয়া কৃষি আইন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দাবি, দেশের কৃষিক্ষেত্রে সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা ছিল। নয়া কৃষি আইন হলেও, পুরনো কৃষি মান্ডি বন্ধ হয়নি। শুধু তাই নয়, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি)-ও বন্ধ হয়নি। কেন্দ্রের আনা নয়া কৃষি আইন জারি করার পর এমএসপি-তেও কেনাবেচা বেড়েছে বলে মোদী লোকসভায় দাবি করেছেন।

এদিন তিনি ফের একবার অভিযোগের সুরে বলেন যে, কৃষকদের এই আন্দোলনের পিছনে বিরোধীদের হাত রয়েছে। তাঁর মতে, দেশে নয়া কৃষি আইন নিয়ে মিথ্যে গুজব ছড়ানো হয়েছে। বহু রাজ্যে কৃষক ভাই-বোনেরা এই গুজবের শিকার। কৃষি আইন নিয়ে ভুল ধারণা ছড়ানো হয়েছে।

এদিন বিরোধীদের সমালোচনার সঙ্গে ফের একবার প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে উঠে আসে ‘আন্দোলনজীবী’ প্রসঙ্গ। তিনি বলেন যে, কৃষকদের আবেগের মর্যাদা দিয়ে, তাঁদের সঙ্গে কৃষি আইন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। তিনি আবারও এই কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ আলোচনায় বসার কথাও বলেন। তাঁর মতে, কৃষকদের পবিত্র আন্দোলনকে কলুষিত করেছেন এই আন্দোলনজীবীরা।

আরো পড়ুনঃ   অবাক কান্ড! ৮০ কোটি ইলেকট্রিকের বিল দেখে হাসপাতালে বৃদ্ধ