দুই সন্তানই কন্যা, পুত্রসন্তানের জন্ম দিতে না পারার অপরাধে স্ত্রীর উপর অ্যাসিড হামলা স্বামীর!

দুই সন্তানই কন্যা, পুত্রসন্তানের জন্ম দিতে না পারার অপরাধে স্ত্রীর উপর অ্যাসিড হামলা স্বামীর!
দুই সন্তানই কন্যা, পুত্রসন্তানের জন্ম দিতে না পারার অপরাধে স্ত্রীর উপর অ্যাসিড হামলা স্বামীর! / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ এটা ২০২১, সময় অনেক এগিয়েছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়েছে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে কুসংস্কা্রের বেড়াজাল থেকে মানুষ নিজেদের মুক্ত করছে। তাও, হ্যাঁ তাও, সমাজের একটা অংশ এখনও অশিক্ষা এবং ভ্রান্ত ধারণার অন্ধকারে নিমজ্জিত।

নিজেদের সেই অন্ধকার থেকে আলোয় নিয়ে আসার ইচ্ছেও তাঁদের মধ্যে খুব একটা নেই। অনেকে তো শিক্ষিত হয়েও মানসিকতায় অনেক পিছিয়ে। তারই এক জ্বলন্ত উদাহরণ দেখতে পাওয়া গেল পঞ্জাবে। আগের দুই সন্তান কন্যা। তাই নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে নিত্যদিন অশান্তি লেগেই থাকত। কেন পুত্র সন্তানের জন্ম দিতে পারেননি স্ত্রী? এটাই তাঁর অপরাধ। আর এই অপরাধেই স্বামীর অ্যাসিড হামলার শিকার হলেন এক মহিলা। বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই মহিলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এদিকে ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় মহিলার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের পাতিয়ালা জেলার নওগাভান গ্রামে। ২০১৪ সালে বিয়ে হয়েছিল ওই দম্পতির। এরপর দুটি সন্তান হয় তাঁদের। কিন্তু দু’জনই কন্যাসন্তান। একজনের বয়স ৬, অপরজনের ৪। কেন পুত্র সন্তান হচ্ছে না, তাই নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই চলছিল অশান্তি। পুত্র সন্তানের জন্য স্ত্রীর উপর অকথ্য অত্যাচার চালাতেন ওই মহিলার স্বামী।

এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঘটনার দিন অর্থাৎ গত মঙ্গলবার রাতেও একই কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি শুরু হয়। এই সময়ই রাগের মাথায় স্ত্রীর গায়ে অ্যাসিড ছোঁড়ে অভিযুক্ত স্বামী, তারপর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। এই হামলার জেরে মহিলা আর্তনাদ করে ওঠেন। এরপরই খবর দেওয়া হয় পুলিশে। মহিলাকে উদ্ধার করে তড়িঘড়ি নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় রাজপুরা হাসপাতালে। বর্তমানে সেখানেই এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মহিলার শরীরের ৫৮ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে। বুকে এবং মাথায় গুরুতর আঘাতও রয়েছে। পলাতক অভিযুক্তের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি। তদন্ত চলছে, ওই ব্যক্তি কোথা থেকে অ্যাসিড সংগ্রহ করেছিলেন, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এই হামলার পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা, তাও দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০২১-এ এই ধরনের ঘটনা ঘটছে এটা ভেবে অবাক হলেও, এটাই সত্যি। মেয়েরা আজ কোনও অংশে পুরুষের থেকে কম নয়, এই কথাটা এক শ্রেণির মানুষ যে আর কবে বুঝবে? এই প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে। দেশের শাসনভার সামলানো থেকে মহাকাশে পৌঁছে যাওয়া, বিজ্ঞান থেকে শিল্প- সংস্কৃতি সব বিষয়েই মেয়ে্রা আজ এগিয়ে। তাও আজকের সময়ে পুত্র সন্তান না হওয়ার জন্য অ্যাসিড হামলার শিকার হতে হচ্ছে।