বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড মুম্বইয়ের করোনা হাসপাতালে! অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত ২

বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড মুম্বইয়ের করোনা হাসপাতালে! অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত ২
বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড মুম্বইয়ের করোনা হাসপাতালে! অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত ২ / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ গভীর রাতে মুম্বইয়ের ভাণ্ডুপে কোভিড হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন লাগাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার রাত ১২.৩০ টা নাগাদ ভাণ্ডুপের ড্রিম মলের দোতলায় আগুন লাগে। আগুন লাগার কিছু সময়ের মধ্যেই তা ছড়িয়ে পড়ে মলের ভিতরে সানরাইজ হাসপাতালে।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই হাসপাতালে ৭০ জন করোনা রোগী ভর্তি ছিলেন। এর মধ্যে আবার ৭ জন করোনা রোগী ভেন্টিলেশনে ছিলেন। আগুন লাগায় এবং তা ছড়িয়ে পড়ায় হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়। ঘটনাস্থলে দমকলের ২৩ টি ইঞ্জিন পৌঁছে যায়। কীভাবে আগুন লাগল, তা এখন স্পষ্ট নয়।

এদিকে মুম্বই-সহ গোটা মহারাষ্ট্রের করোনা পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগজনক এই মুহূর্তে। ক্রমাগত বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সরকার থেকে বারবার করোনাবিধি মেনে চলার কথা বলা হচ্ছে। এই আবহে এই অগ্নিকাণ্ড শহরবাসীর আতঙ্ক আরও বাড়াল। রাত ১২.৩০ নাগাদ ড্রিমস মল সানরাইজে আগুন লাগায় সঙ্গে সঙ্গে ৭০ জন করোনা রোগীকেও সেখান থেকে বের করে অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়। আগুন কীভাবে লাগল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনায় মৃত্যু হয় ২ জনের।

পুলিশ আধিকারিক প্রশান্ত কদম এক সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন যে, এই ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। উল্লেখ্য, ৭০ জন কোভিড রোগীদের মধ্যে কয়েকজনকে মুম্বইয়ের মালান্দ জাম্বো সেন্টার এবং ফর্টিস হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এই হাসপাতালটি একটি মলের মধ্যে ছিল বলে জানা গিয়েছে। এই বিষয়ে মেয়র কিশোরী পেডনেকর জানিয়েছেন, ‘এই প্রথম আমি কোনও মলের মধ্যে হাসপাতাল দেখলাম। এটা খুব বড় একটা সমস্যা। কয়েকজন রোগী ভেন্টিলেশনে ছিলেন। ৭০ জনকে অন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে কী কারণে এই আগুন লাগল তা তদন্ত হবে।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মুম্বইয়ের প্রতিদিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বৃহস্পতিবার শুধু মুম্বই শহরেই নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৫০৪ জন।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.