বিজেপি নিজের কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলছে! দাবি ফিরহাদের

বিজেপি নিজের কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলছে! দাবি ফিরহাদের
বিজেপি নিজের কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলছে! দাবি ফিরহাদের

কলকাতার পুরভোটের দিন ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে হাওড়ার পুরভোটের দিন এখনো জানায়নি কমিশন। এরপরেই বিজেপি ফের মামলা করেছে আদালতে। আর এই প্রসঙ্গেই বিজেপিকে তোপ দাগলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। একইসঙ্গে ত্রিপুরার ভোট নিয়েও মুখ খোলেন তিনি।

এদিন বিজেপির আদালতে মামলা করার প্রসঙ্গে ফিরহাদ হাকিম জানান, “বিজেপি নিজের কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলছে এবং সেই কারনেই তারা ছন্নছারা হয়ে গেছে। এরপরেই তিনি বলেন বিজেপি হারিয়ে গেলে তা বাংলার পক্ষে এবং মানুষের পক্ষে ভাল।” তিনি আরও জানান, “পশ্চিমবঙ্গে বাম সরকারের আমলে তৃণমূল বহু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করেছে। কিন্তু বহু সমস্যার সম্মুখিন হয়েও কখনও নির্বাচন বন্ধ করার জন্য আদালতে যাননি তারা। যদিও তিনি মনে করেন বিজেপি যাই চাইবে আদালত তাই দেবে এমনটা নয়”।

এদিকে এদিন সকাল থেকেই ত্রিপুরায় ভোট হয়েছে বিক্ষিপ্ত অশান্তির মধ্যে দিয়ে। বেশিরভাগ অভিযোগ এসেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। বহু জায়গায় বিজেপি ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেছে তৃণমূল। এই প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন, “ত্রিপুরায় মানুষের অধিকার রক্ষায় ব্যর্থ বিপ্লব দেবের সরকার। এর জবাব তৃণমূল দেবে। তিনি হুশিয়ারি দেন বিজেপি ভোট লুঠ করতে পারে কিন্তু মানুষের অধিকার লুঠ করতে পারবে না। তিনি দাবি করেন মানুষের মনের মধ্যে তৃণমূল ঢুকে গেছে এবং ভবিষ্যতে ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসই সরকার বানাবে”।

পুরভোটের প্রচার করা নিয়ে এদিন আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গেল ফিরহাদের গলায়। তিনি বলেন, “তৃণমূলকে প্রচার করতে হয় না। কারণ তারা সারা বছর মানুষের সঙ্গে রয়েছেন এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা বছর মানুষের জন্য বহু প্রজেক্ট করেছেন। মে মাসের নির্বাচন এবং পরবর্তী উপনির্বাচন, সবগুলিতেই দেখা গেছে মানুষ কীভাবে তৃণমূলের পাশে থেকেছে”।