হেরে যাওয়ার ভয়ে বাহানা তৈরি করছে বিজেপি, পাল্টা দাবি ফিরহাদের

হেরে যাওয়ার ভয়ে বাহানা তৈরি করছে বিজেপি, পাল্টা দাবি ফিরহাদের
হেরে যাওয়ার ভয়ে বাহানা তৈরি করছে বিজেপি, পাল্টা দাবি ফিরহাদের

প্রচারের শেষ দিনের মতোই ভোটের দিন সকাল থেকেই বাকযুদ্ধে সরগরম হয়ে উঠেছে ভবানীপুর। ভোট যুদ্ধের দিন সকালে যেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর অভাব নিয়ে সরব হলেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল, ঠিক তখনই বিজেপিকে পাল্টা জবাব দিলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। একইসঙ্গে কটাক্ষ শোনা গেল তাঁর গলায়।

এদিন সকালেই প্রিয়াঙ্কা অভিযোগ করে বলেন, ৩৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এসেছে ভবানীপুরের উপনির্বাচনে। কিন্তু সকাল থেকে বুথ ছাড়া আর কোথাও কেন্দ্রীয় বাহিনীর দেখা নেই বলে অভিযোগ উঠেছে। হিসাবমতো ৩৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় এলে, রাস্তাতেও পর্যাপ্ত জওয়ানদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু সকাল থেকে শুধুই কলকাতা পুলিশের উপস্থিতি রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই নিয়ে বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল নির্বাচন কমিশনে জানিয়েছেন। একইসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের পাড়ায় বুথ জ্যামের অভিযোগ তুলেছেন।

এই প্রসঙ্গেই পাল্টা জবাব দিয়ে ফিরহাদ হাকিম জানান, “হেরে যাওয়ার ভয়ে এসব বাহানা তৈরি করছে বিজেপি। মদন মিত্রের এলাকা বলে কোনও এলাকা আছে? সবটাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এলাকা। বুথ জ্যাম কেন হবে? মদন মিত্রের এলাকা কামারহাটি। এগুলো অকারণে অশান্তি তৈরির চেষ্টা করছে। ভবানীপুরে কোনও জায়গায় কোনও সমস্যা নেই। মাইক্রো অবজারভার রয়েছে, সিসিটিভি রয়েছে, পরিচয়পত্র দেখিয়ে যাচ্ছে মানুষ”।

এদিকে ভবানীপুরে ভোট দানের বিষয়েও আশাবাদী তিনি। বলেন, “মানুষের ভোটদানে উৎসাহ রয়েছে। সকাল থেকেই লাইনে মানুষের ভালই ভিড় দেখা যাচ্ছে। আবহাওয়া ভাল হয়ে গিয়েছে। আশা করছি মানুষ নির্বিঘ্নেই ভোট দেবেন। যদি না বিজেপি উত্তেজনা ছড়ানোর চেষ্টা করে। “