বাবুল সুপ্রিয়কে ভয় পাচ্ছে বিজেপি! কটাক্ষ ফিরহাদের

বাবুল সুপ্রিয়কে ভয় পাচ্ছে বিজেপি! কটাক্ষ ফিরহাদের
বাবুল সুপ্রিয়কে ভয় পাচ্ছে বিজেপি! কটাক্ষ ফিরহাদের

বাবুল সুপ্রিয়কে ভয় পাচ্ছে বিজেপি। তাই লোকসভার স্পিকারও দেখা করছেন না। শনিবার এমনটাই কটাক্ষ করলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। অন্যদিকে, এদিন শুভেন্দু অধিকারীকেও নিশানা করেছেন ফিরহাদ হাকিম।

প্রসঙ্গত, বাবুল সুপ্রিয় বারবার লোকসভার স্পিকারের সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে আবেদন করলেও লোকসভার স্পিকার তার সঙ্গে দেখা করতে নারাজ। এদিন এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন, “লোকসভার স্পিকারের এহেন আচরণ নতুন কিছু নয়। যারা দল ত্যাগ করে চলে যান বা দলের ভুলত্রুটি তুলে ধরেন তাদের সঙ্গে লোকসভার স্পিকার দেখা করার প্রয়োজন বোধ করে না। আসলে ওরা বাবুল সুপ্রিয় কে ভয় পাচ্ছে। সেজন্যেই ওর সামনা সামনি হতে চাইছে না।”

সম্প্রতি, ভবানীপুর এলাকার ভোটারদের নিয়ে মন্তব্য করেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, “ভবানীপুরে কুড়ি শতাংশ মুসলিম ভোট আছে। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এই কুড়ি শতাংশ মুসলমান ভোটারদের দিকে রুটি ছুঁড়ে দিয়েছে বলেই, তারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ভোট দিতে গেছে”। শুভেন্দু অধিকারীর এ ধরনের কুরুচিকর মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান রাজ্যের পরিবহন ও আবাসনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এই প্রসঙ্গে ফিরহাদ পাল্টা জবাব দিয়ে বলেন, “ভবানীপুর এলাকার মানুষজনকে বিজেপি বিধায়ক তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী কুকুর ভাবছে। এমন ভাবনা থেকে শুভেন্দুর বিরত থাকা উচিত। তার কারণ ভবানীপুরের সমস্ত ধর্ম-বর্ণের মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ভালোবাসে শ্রদ্ধা করে। সেজন্যই তারা ঘরের মেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেই নিজেদের স্বাভিমান নিয়ে ভোট দিতে গেছে। এটা শুভেন্দুর বোঝা উচিত”।