উত্তরপ্রদেশে ভোট রয়েছে তাই সেখানে বেশি ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে! বিস্ফোরক অভিযোগ ফিরহাদের

উত্তরপ্রদেশে ভোট রয়েছে তাই সেখানে বেশি ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে! বিস্ফোরক অভিযোগ ফিরহাদের
উত্তরপ্রদেশে ভোট রয়েছে তাই সেখানে বেশি ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে! বিস্ফোরক অভিযোগ ফিরহাদের

যেহেতু ইউপি তে ভোট রয়েছে তাই সেখানে বেশি সংখ্যক ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে। সোমবার ভ্যাকসিনের অপর্যাপ্ত যোগান নিয়ে কার্যত এই ভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করলেন কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। একইসঙ্গে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে জানান, কলকাতা পুরসভার হাতে খুব কম সংখ্যক ভ্যাকসিন রয়েছে।

পর্যাপ্ত যোগানের অভাবে আজ সোমবার থেকে কলকাতা পুরসভার ৪০টি কেন্দ্রে বন্ধ করা হয়েছে কোভ্যাকসিনের ডোজ। পুরসভার জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে সোমবার থেকে কলকাতা পুরসভার ৩৯টি পুরস্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং একটি মেগা সেন্টারে বন্ধ থাকবে কোভ্যাকসিনের ডোজ।অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হল এই ভ্যাকসিনের ডোজ। আবার যখন ভ্যাকসিন আসবে তখন পুনরায় টিকাকরণ শুরু হবে। তবে কোভিশিল্ডের ডোজ যেমন চলছে তেমন চলতে থাকবে।

এরপরেই এদিন ভ্যাকসিনের অপর্যাপ্ত যোগান নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। বলেন, “প্রথম থেকেই রাজ্য সরকারকে কেন্দ্র সরকার কম সংখ্যক ভ্যাকসিন পাঠাচ্ছে। তার মধ্যে ইউপিতে ভোট রয়েছে তাই সেখানে বেশি করে ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে। অন্যদিকে যে সমস্ত রাজ্যগুলির বিজেপি শাসিত সেখানেও বেশি সংখ্যক ভ্যাকসিন পাঠানো হচ্ছে।”

তাঁর আরও বিস্ফোরক অভিযোগ, “কোন এক ব্যক্তির জন্মদিনের জন্য বিপুল পরিমাণ এর ভ্যাকসিন স্টক করা হচ্ছে। যাতে জন্মদিনের দিন উপহার সরুপ দেওয়া যায়। তার ফলে সাধারণ মানুষের অসুবিধা হচ্ছে। কিন্তু এসব বাংলায় চলবে না। বাংলার মানুষের জন্য ভ্যাকসিন পাঠাতেই হবে। ইতিমধ্যে নব্বই শতাংশ লোকের প্রথম ডোজ নেওয়া হয়ে গেছে। এবং দ্বিতীয় ডোজ যাতে দেওয়া যায় সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে”।

অন্যদিকে, ভ্যাকসিনের পাশাপাশি সিরিঞ্জের ঘাটতি দেখা দিচ্ছে বলেও জানান ফিরহাদ। বলেন, “ভ্যাকসিন এর পাশাপাশি অভাব দেখা দিয়েছে সিরিঞ্জের ।ইতিমধ্যে যে সমস্ত কোম্পানি সিরিঞ্জ উৎপাদন করে তাদের বলা হয়েছে তারা দিন রাত করে উৎপাদন করতে।”