অক্সফোর্ডের দাবী, মিলেছে করোনায় প্রাণনাশ ঠেকানোর দাওয়াই

অক্সফোর্ডের দাবী, মিলেছে করোনায় প্রাণনাশ ঠেকানোর দাওয়াই

অবশেষে পাওয়া গিয়েছে প্রাণঘাতী মহামারী করোনায় মৃত্যু আটকানোর দাওয়াই। এমনটাই দাবী করেছে ইংল্যান্ডের গবেষকরা। তাদের দাবী ডেক্সামিথ্যাসোন (dexamethasone) নামের এই দাওয়াই সংকটজনক করোনায় আক্রান্তদের নিশ্চিতভাবে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনতে সফল হয়েছে। মঙ্গলবারই এই গবেষকদের গবেষণার ফল প্রকাশ পেয়েছে। ইংল্যান্ডের বিজ্ঞানীদের দাবী তাদের এই গবেষণার ফল খুব দ্রুতই সাধারণ মানুষের জন্য প্রকাশিত হবে।

বিজ্ঞানীরা দাবী জানিয়েছেন যে তাদের গবেষণায় তারা দেখেছেন যে সাধারণভাবে কোভিড আক্রান্ত ৪৩২১ জন চিকিৎসাধীন রোগীর তুলনায় এই স্টেরয়েড প্রয়োগ করা ২১০৪জন রোগীর অনেক বেশি শারীরিক উন্নতি হয়েছে। জানা গিয়েছে যে এই ডেক্সামিথ্যাসোন ওষুধটি রোগীদের খাওয়ানো বা আইভি পদ্ধতিতে প্রয়োগ করার পর তারা বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে এই ওষুধের জেরে ৩৫ শতাংশ কৃত্তিমভাবে শ্বাস নেওয়া রোগীদের মৃত্যুর আশঙ্কা কম হয়ে গিয়েছে। ওই গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে যে সমস্ত করোনা রোগীদের শ্বাস নেওয়ার জন্য অক্সিজেন দিতে হচ্ছিল তাদের শরীরে এই স্টেরয়েড দেওয়ার ফলে তাদের মধ্যে ২০ শতাংশ মৃত্যুর আশঙ্কা কমে গিয়েছে। তবে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন যে এই ওষুধটি একমাত্র আশঙ্কাজনক অবস্থায় থাকা রোগীদের শরীরেই ফলপ্রসু হবে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে দাবী করা হয়েছে যে এই ওষুধের মাধ্যমে ভেন্টিলেশনে থাকা প্রতি আটজন রোগীর মধ্যে থেকে একজনের প্রাণ বাঁচানো যাবে।

অক্সফোর্ডের ওই গবেষক দলের অন্যতম সদস্য পিটার হারবি তার বয়ানে জানিয়েছেন, “যে সমস্ত রোগীকে অক্সিজেন দেওয়া জরুরি ছিল, তাঁদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা কমাতে এই ওষুধের উপকারিতা প্রমাণ হয়েছে। এই কারণে এই রোগীদের সারিয়ে তুলতে ডেক্সামিথ্যাসোন প্রয়োগ জরুরি। এই স্টেরয়েড সস্তা, সহজলভ্য এবং বিশ্বজুড়ে আশঙ্কাজনক কোভিড রোগীদের ক্ষেত্রে অবিলম্বে প্রয়োগ করা সম্ভব”।

আরও পড়ুনঃ  এইসময় হোটেলে থাকা কতটা নিরাপদ! জেনে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.