ধর্ষণের দায়ে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী গায়ত্রী প্রসাদ প্রজাপতির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা!

ধর্ষণের দায়ে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী গায়ত্রী প্রসাদ প্রজাপতির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা!
ধর্ষণের দায়ে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী গায়ত্রী প্রসাদ প্রজাপতির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা!

বংনিউজ ২৪x ডিজিটাল ডেস্কঃ ধর্ষণের অভিযোগে বুধবারই দোষী সাব্যস্ত করেছিল লখনউয়ের বিশেষ আদালত। শুক্রবার অর্থাৎ আজ উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা সমাজবাদী পার্টির নেতা গায়ত্রী প্রসাদ প্রজাপতি  এবং তাঁর দুই সহযোগীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিলেন বিচারক পি কে রাই৷

গায়ত্রী প্রসাদ প্রজাপতি  প্রাক্তন মন্ত্রী ছিলেন। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আরও দুই অপরাধী হলেন, আশিস শুক্লা এবং অশোক তিওয়ারি৷ ধর্ষণের অভিযোগে ২০১৭ সালের মার্চ মাসে গ্রেফতার হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে এক মহিলা ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন। ওই মহিলা পুলিশকে জানিয়েছিলেন, ২০১৪ সালের অক্টোবর মাস থেকে গায়ত্রী ও তাঁর দুই সহযোগী মিলে তাঁকে গণধর্ষণ করে৷ শুধু তাই নয়, ওই মহিলার আরও অভিযোগ ছিল যে, তাঁর মেয়েকেও শ্লীলতাহানি এবং ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়৷ এই অভিযোগ সামনে আসার পরই উত্তরপ্রদেশের রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে যায়।

সুপ্রিম কোর্টের নিরদেশে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর নিতে একপ্রকার বাধ্য হয় গৌতমপল্লী থানার পুলিশ৷ ২০১৭ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি এফআইআর নথিভুক্ত করার পরে, মন্ত্রীকে মার্চ মাসে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল এবং তখন থেকেই তিনি কারাগারে ছিলেন। তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করার সময়, বিচারক মামলার অন্য চার অভিযুক্তকে খালাস দিয়েছেন। তাঁরা হলেন, বিকাশ ভার্মা, রূপেশ্বর, অমরেন্দ্র সিং ওরফে পিন্টু এবং চন্দ্রপাল। প্রমাণের অভাবে তাঁদের অব্যহতি দিয়েছে আদালত। ওই মামলায় গত বুধবার দোষী সাব্যস্ত হন সপা নেতা-সহ আশিস এবং অশোক৷ এঁদের মধ্যে আশিস ছিলেন আমেঠির রেভেনিউ ক্লার্ক৷ অন্যদিকে ঠিকা শ্রমিক নিয়োগের কাজ করতেন তিওয়ারি৷ গণধর্ষণের মামলায় তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হলেও, প্রমাণের অভাবে বাকি চারজন ছাড়া পেয়ে যান৷ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ ১৭ জন সাক্ষীকে করেছিল।

মহিলাটি দাবি করেছিলেন যে, ২০১৪ সালের অক্টোবর থেকে মন্ত্রী এবং তাঁর সহযোগীরা তাঁকে ধর্ষণ করছে। অভিযুক্তরা জুলাই  ২০১৬ সালে তাঁর নাবালিকা মেয়েকে শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণ করার চেষ্টা করার পরে তিনি তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার সিদ্ধান্ত নেন।