কী কাণ্ড! প্রাক্তন মন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠকে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খাচ্ছেন! মুহূর্তেই ভাইরাল ভিডিও

কী কাণ্ড! প্রাক্তন মন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠকে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খাচ্ছেন! মুহূর্তেই ভাইরাল ভিডিও
কী কাণ্ড! প্রাক্তন মন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠকে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খাচ্ছেন! মুহূর্তেই ভাইরাল ভিডিও

বংনিউজ২৪x৭ ডেস্কঃ এক প্রাক্তন মন্ত্রী কিনা ভরা সাংবাদিক বৈঠকে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খাচ্ছেন। এমন অস্বাভাবিক ঘটনা এর আগে কখনও শুনেছেন? না নিশ্চয়ই! গা গুলিয়ে উঠছে নিশ্চয়ই! কি কাণ্ড ভাবুন তাহলে একবার। কিন্তু এসব করে কী প্রমাণ করতে চাইলেন তিনি? শুনুন তাহলে।

শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন মৎস্য মন্ত্রী বছর ৬৩-র দিলীপ ওয়েড়ারাচ্চি এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন সম্প্রতি। মঙ্গলবার কলম্বোয় এক সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁর এই কীর্তি দেখে সকলেই হতবাক। তবে, একটি বিশেষ কারণেই তিনি এমন অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়েছেন। আর তাহল, করোনা মহামারীর কারণে অন্যান্য ক্ষেত্রের মতো মৎস্য চাষেও মন্দা দেখা দিয়েছিল। শুধু তাই নয়, শ্রীলঙ্কায় এক ধাক্কায় সামুদ্রিক মাছের বিক্রি অনেকটাই কমে যায়। আর তাই মাছের বিক্রি বাড়াতে তিনি এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তিনি বুঝিয়ে দিতে চেয়েছেন যে, করোনা অতিমারী পরিস্থিতিতেও, সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার মধ্যে কোনও বিপদ নেই। তিনি কাঁচা মাছ যখন খেতে পারছেন, তখন রসিয়ে রান্না করে খাওয়াতে তো কোনও সমস্যাই নেই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত মাসেই কলম্বোয় সেন্ট্রাল ফিস মার্কেটে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এর জেরে বন্ধ হয়ে যায় মার্কেট। আর বিক্রি না হওয়ার কারণে বহু মাছ নষ্ট হয়ে যায়। পাশাপাশি মাছের চাহিদা না থাকায়, দাম এক ঝটকায় অনেকটাই কমে যায়। ফলে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েন মৎস্য ব্যবসায়ীরা। পাতে মাছের পদ রাখতেই ভয় পাচ্ছিলেন শ্রীলঙ্কাবাসীরা।

এবার শ্রীলঙ্কাবাসীর সেই আতঙ্ক দূর করতেই, আসরে নামেন সেখানকার প্রাক্তন মৎস্য মন্ত্রী। কাঁচা মাছে কামড় দিয়ে তিনি বলেন যে, ‘আমাদের মৎস্য ব্যবসায়ীরা মাছ বিক্রি করতে পারছেন না। কারণ দেশবাসী মাছ খেতে ভয় পাচ্ছেন। সেই জন্য এই মাছটা সঙ্গে এনেছি। দেখুন, এটা খেলে কোনও সমস্যা নেই। প্রত্যেককে অনুরোধ জানাবো, সকলে যেন মাছ খান। ভয় পাবেন না। এর থেকে করোনা সংক্রমিত হবেন না।’

প্রাক্তন মৎস্য মন্ত্রীর আমজনতাকে মাছ খাওয়ার অনুরোধ জানাতে কাঁচা মাছ খাওয়ার এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই, তা মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.