সহকর্মীর গুলিতে প্রাণ হারালেন সহকর্মীরাই! ছত্তিশগড়ের সিআরপিএফ ক্যাম্পে জওয়ানের গুলিতে মৃত অন্তত ৪

সহকর্মীর গুলিতে প্রাণ হারালেন সহকর্মীরাই! ছত্তিশগড়ের সিআরপিএফ ক্যাম্পে জওয়ানের গুলিতে মৃত অন্তত ৪
সহকর্মীর গুলিতে প্রাণ হারালেন সহকর্মীরাই! ছত্তিশগড়ের সিআরপিএফ ক্যাম্পে জওয়ানের গুলিতে মৃত অন্তত ৪ / প্রতীকী ছবি

বংনিউজ ২৪x৭ ডিজিটাল ডেস্কঃ ঘড়ির কাটা বলছে তখন মাঝরাত। সবাই গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। এমন সময় আচমকাই এলোপাথাড়ি গুলি। সি আর পি এফ ক্যাম্পে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন সহকর্মীদের উপর গুলি চালাতে শুরু করলেন এক সিআরপিএফ (CRPF) জওয়ান। এই এলোপাথাড়ি গুলি চালানোর ঘটনায় ইতিমধ্যেই ৪ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত আরও বেশ কয়েকজন। ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের সুকমা মারাইগুড়া সিআরপিএফ ক্যাম্পে। আহত জওয়ানদের ইতিমধ্যেই উদ্ধার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁদের মধ্যে অনেকেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেই খবর।

অভিযুক্তকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। ঠিক কী কারণে অভিযুক্ত জওয়ান এই কাণ্ড ঘটালেন, তা খতিয়ে দেখতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ, এই ঘটনার জেরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে সুকমার এই সিআরপিএফ ক্যাম্পে।

সুকমার মারাইগুড়া পুলিশ স্টেশনের কাছে অবস্থিত সিআরপিএফের ৫০ নং ব্যাটেলিয়নের ক্যাম্প। সিআরপিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, রীতেশ রঞ্জন নামক ওই সিআরপিএফ জওয়ান তাঁর ক্যাম্পেরই সাতজন সহকর্মীর উপর আচমকা হামলা করেন। মধ্যরাতে যখন সবাই ঘুমোচ্ছিলেন, তখন নিজের সার্ভিস বন্দুক দিয়েই তিনি ওই সাত জওয়ানের উপর এলোপাথাড়িভাবে গুলি চালান। গুলির শব্দে বাকিরা ছুটে আসেন এবং দেখতে পান রক্তাক্ত অবস্থায় সাত জওয়ান পড়ে রয়েছেন।

গুরুতর আহত জওয়ানদের সঙ্গে সঙ্গে ভদ্রচালম এলাকার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হলেও, এদের মধ্যে চারজনের আঘাত অত্যন্ত গভীর হওয়ায় এবং অতিরিক্ত রক্তপাতের কারণে চিকিৎসা চলাকালীনই তাঁদের মৃত্যু হয়। সিআরপিএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, আহত দুই জওয়ানকে চিকিৎসার জন্য় আকাশপথে রায়পুরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এদিকে, কেন এই ঘটনা ঘটল, কেনই বা ওই রীতেশ রঞ্জন এই কাণ্ড ঘটালেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। সম্প্রতি তাঁদের মধ্যে কোনও বচসা বা মনোমালিন্য হয়েছে কিনা তা জানার জন্য বাকি সিআরপিএফ জওয়ানদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। এছাড়াও সিআরপিএফের তরফে আলাদাভাবে গোটা ঘটনার তদন্তের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।