টিকাকরণ বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ! ভ্যাকসিন না নিলেই এই রাজ্যে বন্ধ হবে গ্যাস, রেশন, পেট্রোল

টিকাকরণ বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ! ভ্যাকসিন না নিলেই এই রাজ্যে বন্ধ হবে গ্যাস, রেশন, পেট্রোল / প্রতীকী ছবি
টিকাকরণ বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ! ভ্যাকসিন না নিলেই এই রাজ্যে বন্ধ হবে গ্যাস, রেশন, পেট্রোল / প্রতীকী ছবি

দেশের করোনা পরিস্থিতিতে টিকাকরণের গতি বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ নিল মহারাষ্ট্র সরকার। এবার থেকে কোভিড ভ্যাকসিন না নিলে বন্ধ হয়ে যাবে নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিসের সরবরাহ। মিলবে না পেট্রোলও। সম্প্রতি এমনই নির্দেশিকা জারি করল মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদ জেলা প্রশাসন। গত ৯ নভেম্বর থেকে তা কার্যকরও হয়েছে এলাকা জুড়ে।

ওই নির্দেশকায় বলা হয়েছে, ৯ নভেম্বরের পর থেকে যাঁরা এখনও অবধি কোনও কারণ ছাড়াই টিকার একটি ডোজও নেননি, তাঁদের পেট্রোল-ডিজেল বিক্রি করা হবে না। পাশাপাশি বন্ধ হবে রান্নার গ্যাস ও রেশন সরবরাহও৷ একই সঙ্গে জেলার পর্যটন কেন্দ্রগুলিতেও হোটেল, রিসর্ট এবং দোকানের মালিক ও কর্মীদের টিকাকরণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। টিকা না নেওয়া থাকলে সেই ব্যবসাও বন্ধ হয়ে যাওয়ার জোর আশঙ্কা।

উল্লেখ্য, বর্তমানে মহারাষ্ট্র জুড়ে টিকাকরণের হারে ঔরঙ্গাবাদের স্থান ২৬। গোটা রাজ্যে টিকাকরণের হার প্রায় ৭৪ শতাংশ হলেও ঔরঙ্গাবাদে তা মাত্র ৫৫ শতাংশ। দু’টি ডোজ সম্পূর্ণ হয়েছে এমন টিকাকরণের হার মাত্র ২৩ শতাংশ। এই কম টিকাকরণের হার নিয়ে ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনকে সতর্ক করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। উপযুক্ত পদক্ষেপের নির্দেশও দিয়েছিলেন। তবে এরপরও সেই জেলায় টিকাকরণ নিয়ে মানুষের মনে উদাসীনতা দেখা যাচ্ছে। সেই কারণেই জেলায় টিকাকরণে গতিতে দ্রুততা আনতে কড়়া পদক্ষেপ নিল প্রশাসন।

টিকাকরণ বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ! ভ্যাকসিন না নিলেই এই রাজ্যে বন্ধ হবে গ্যাস, রেশন, পেট্রোল / প্রতীকী ছবি
টিকাকরণ বাড়াতে অভিনব পদক্ষেপ! ভ্যাকসিন না নিলেই এই রাজ্যে বন্ধ হবে গ্যাস, রেশন, পেট্রোল / প্রতীকী ছবি

তবে শুধু ঔরঙ্গাবাদই নয়, ১০০ শতাংশ টিকাকরণের লক্ষ্যে জোর দিচ্ছে গোটা মহারাষ্ট্রই। বর্তমানে ভ্যাকসিন ছাড়া ওই রাজ্যের এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যাতায়াতের উপরও কড়া নজরদারি শুরু হচ্ছে বলে খবর। এছাড়াও ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে যাঁরা একটি কোভিড টিকার ডোজও নেননি বা কোনও কারণ ছাড়াই দ্বিতীয় ডোজ নিতে দেরি করছেন, তাঁদের রাজ্যের বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ। গণ-পরিবহণ বা ব্যক্তিগত পরিবহণ ব্যবহার করেও এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যেতে পারবেন না তাঁরা।

পাশাপাশি মহারাষ্ট্রের সমস্ত পর্যটন কেন্দ্রে প্রবেশের জন্য টিকাকরণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। টিকা না নেওয়া থাকলে ঢুকতে দেওয়া হবে না বিবি কা মকবরা, অজন্তা-ইলোরা গুহা, দৌলতাবাদ দুর্গে। সরকারি অফিসেও টিকার দু’টি ডোজ বাধ্যতামূলক। মহারাষ্ট্রে উৎসবের মরশুমে টিকাকরণে হার বাড়লেও এখন তা ফের ধীর গতিতে নেমে গিয়েছে। তাই দ্রুত টিকাকরণ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে রাজ্যকে ১০০ শতাংশ টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা নিতে হবে বলেও ঘোষণা করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে৷