জমিতে ঢুকে ফসলের ক্ষতি করেছে ছাগল! প্রতিবাদ করায়, ঘটল করুণ পরিণতি

জমিতে ঢুকে ফসলের ক্ষতি করেছে ছাগল! প্রতিবাদ করায়, ঘটল করুণ পরিণতি
জমিতে ঢুকে ফসলের ক্ষতি করেছে ছাগল! প্রতিবাদ করায়, ঘটল করুণ পরিণতি / নিজস্ব ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদহঃ জমিতে ঢুকে প্রতিবেশীর ছাগল ফসল নষ্ট করেছে। এই ঘটনা নিত্য দিনের। এই ঘটনার প্রতিবাদ করায়, জমির মালিক ওই প্রতিবেশীর কপালে জুটল মার। শুধু তাই নয়, মারধরের পাশাপাশি ধারলো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হল প্রতিবাদী প্রতিবেশীকে। শনিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের চাঁচোলের ভগবানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গৌরীপুর এলাকায়। গুরুতর আক্রান্ত জমির মালিক ওই প্রতিবাদী ব্যক্তি ঘটনার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চাঁচলের ভগবানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গৌরীপুর গ্রামের বাসিন্দা নারায়ণ মহালদারের ফসলি জমি রয়েছে, সেই জমিতে তাঁরই প্রতিবেশী ভারতী মহালদারের ছাগল ঢুকে প্রতিদিনই জমির ফসল নষ্ট করে। এ ব্যাপারে বহুবার ভারতী মহলদারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন নারায়ণ মহালদার এবং তাঁকে ছাগল বেঁধে রাখতে বলেন, নারায়ণ মহালদার। কিন্তু সে কথায় কর্ণপাত করেননি প্রতিবেশী ভারতী।

এদিনও সেই ছাগল জমিতে ঢুকে জমির ফসল খেয়ে নেয় ও জমির ফসল নষ্ট করে। এই ঘটনার প্রতিবাদ করতে গেলে, জমির মালিক নারায়ণ মহলদার ও তাঁর স্ত্রীকে মারধর করে করেন বলে অভিযোগ তাঁদেরই প্রতিবেশী ভারতী মহলদার ও তাঁর ছেলে মোহন মহলদার। ধারালো অস্ত্র দিয়ে জমির মালিক নারায়ণ মহালদারের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। বর্তমানে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই চাঁচোল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এই মর্মে অভিযুক্ত প্রতিবেশী ভারতী মহলদার ও ছেলে মোহন মহালদারের বিরুদ্ধে চাঁচোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত প্রতিবেশী নারায়ণ মহলদার। অভিযোগ পেয়ে, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চাঁচল থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন.